জমানো টাকায় গড়া শহীদ মিনারে ২১ ফেব্রুয়ারি শ্রদ্ধা জানাবেন তিনি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৪:০৩ এএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার প্রতিমাবংকী পূর্ব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০১৮ সালের আগে কোনো শহীদ মিনার ছিল না। ফলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষাশহীদদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে পারতেন না স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

তবে এ বছর থেকে স্কুলের শহীদ মিনারেই ভাষাশহীদদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে পারবেন তারা। স্কুলেরই সহকারী এক শিক্ষিকা নিজের টাকায় গড়ে তুলেছেন একটি শহীদ মিনার।

বেগম আলেয়া ফেরদৌসী নামে ওই শিক্ষিকা নিজের জমানো ৩৬ হাজার টাকায় ২০১৮ সালের মে মাসে স্কুলে একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করেন। বৃহস্পতিবার সকালে এই মিনারে প্রথমবারের মতো ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে।

আলেয়া ফেরদৌসী বলেন, আমাদের গ্রাম থেকে সখীপুর উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে। এ গ্রামের মানুষ ও শিক্ষার্থীদের কখনো সেখানে গিয়ে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হতো না।

shahid

১৯৯৯ সালে ইউনেসকো ২১ ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবসকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর স্কুলে একটি শহীদ মিনার তৈরির স্বপ্ন জাগে। এরপর থেকে প্রতি মাসের বেতন থেকে সংসারের খরচ মিটিয়ে কিছু টাকা জমানো শুরু করি।

তিনি জানান, ২০১৭ সালে স্কুল পরিচালনা কমিটিকে এ বিষয়ে জানানো হয়। তাদের অনুমতি পাওয়ার পর নির্মাণ কাজ শুরু করেন তিনি।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহম্মদ আলমগীর হোসেন বলেন, নতুন এ শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শিক্ষার্থী, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ও এলাকাবাসী এদিন ভোরে শহীদ মিনারে উপস্থিত থাকবেন।

বিএ