লন্ডন থেকে ফণী মোকাবিলার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী : হানিফ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ০৭ মে ২০১৯

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি এখন দেউলিয়া হয়ে গেছে। দুর্নীতি ও অপরাজনীতির কারণে ক্রমাগত জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে তারা। মিথ্যা ও অপপ্রচার করে আবার জনগণের কাছে যাওয়ার চেষ্টা করছে বিএনপি।

মঙ্গলবার দুপুরে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা ও সদর উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন ও ক্ষতিগ্রস্ত ৩০০ পরিবারের মাঝে খাবারসহ ত্রাণসামগ্রী বিতরণ শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের ওপর মানুষের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। তবে এতে মনোবল হারাবেন না, ধৈর্য হারাবেন না। জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে চিকিৎসারত অবস্থায় আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন এখানে আসার জন্য। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন তিনি যতদিন বেঁচে আছেন ততদিন কেউ না খেয়ে থাকবে না, ঘরহারা হবে না। প্রত্যেক পরিবারকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ঘর করে দেয়া হবে।

হানিফ বলেন, কোনো মানুষ গৃহহারা থাকবে না, সবাইকে পুনর্বাসন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার সবসময় জনগণের সঙ্গে আছে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর তাণ্ডবের সময় প্রধানমন্ত্রী লন্ডন থেকে সার্বক্ষণিক দেশের খোঁজখবর রেখেছেন। সবাইকে সমন্বয় করে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রস্তুতি ও পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

nanok

এ সময় সরকারি কর্মকর্তাদের ত্রাণ বিতরণে স্বচ্ছতা ও নিয়ম মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, ত্রাণ বিতরণে কোনোরকম অনিয়ম বা হরিলুট সহ্য করবে না সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চোখের অপারেশনের কারণে লন্ডনে রয়েছেন। না হলে তিনি আরও আগেই সুবর্ণচরে আসতেন ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে দেখার জন্য। তবে লন্ডন থাকলেও সবসময় দেশের মানুষের খোঁজখবর নিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুর নাহার লাইলী, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশিদ, ত্রাণ ও সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামছুন্নাহার চাঁপা, নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম, জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস, পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ, সুবর্ণচর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আবু ওয়াদুদ ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার প্রমুখ।

এর আগে সকালে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পৌঁছালে তাদের বরণ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ খায়রুল আলম সেলিম, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল প্রমুখ।

মিজানুর রহমান/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :