রোগীর বাবাকে রক্তাক্ত করলেন চিকিৎসক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৮:৫৪ পিএম, ১৯ মে ২০১৯

রোগীর বাবাকে কিল-ঘুষি মেরে রক্তাক্ত করেছেন পাবনার বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক। শনিবার বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ ঘটনার পর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মিলন মাহমুদ কর্মস্থল ছেড়ে আত্মগোপনে করেছেন। শনিবার রাতে এ ব্যাপারে বেড়া মডেল থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার বিকেলে বেড়া উপজেলার সানিলা গ্রামের সোনাই মোল্লা (৩৫) তার অসুস্থ ছেলেকে নিয়ে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। এ সময় সোনাই মোল্লা তার ছেলেকে চিকিৎসা দেয়ার কথা বললে ডা. মিলন মাহমুদ উত্তেজিত হয়ে পড়েন। তিনি সোনাই মোল্লাকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারেন। সেই সঙ্গে সোনাই মোল্লার বাইসাইকেল লাথি দিয়ে ফেলে দেন। এতে সোনাই মোল্লার বাম চোখে আঘাত লাগে ও ঠোঁট ফেটে যায়। এছাড়া শরীরের বিভন্ন স্থানে জখম হয় তার।

এ বিষয়ে আহত সোনাই মোল্লা বলেন, ছেলেকে চিকিৎসা দেয়ার কথা বললে কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমাকে অহেতুক মারধর করেছেন ডা. মিলন মাহমুদ। তারপর আমি সাঁথিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছি।

এ ব্যাপারে ডা. মিলন মাহমুদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তাই তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাবনার ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. কেএম আবু জাফর বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। ঘটনা জেনে এরপর এ বিষয়ে কথা বলব।

এ ঘটনায় অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বেড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ মাহমুদ বলেন, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত শেষে দোষীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জামান/এএম/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]