শিক্ষাব্যবস্থায় কারিগরি বিষয়ে জোর দেয়া হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৭:৫৫ পিএম, ২৪ মে ২০১৯

মানুষের আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়ানোর লক্ষ্যে শিক্ষাব্যবস্থায় কারিগরি বিষয়ে অধিক জোর দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শুক্রবার দুপুরে চাঁদপুর সদর উপজেলায় এক অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শিক্ষাব্যবস্থায় গত ১০ বছরে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এ উন্নয়নের ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়ে আমরা এখন শিক্ষার মান বাড়ানোর কাজ করছি।

দীপু মনি বলেন, শিক্ষা জীবন শেষে শিক্ষার্থীরা যেন উন্নত জীবন পায়, তাদের যেন আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ হয়, সেই কারণে আমরা শিক্ষা ব্যবস্থায় কারিগরির ব্যাপারে অধিক জোর দিচ্ছি। ২০১০ সালে দেশে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের ভর্তির হার ১ ভাগেরও কম ছিল। আমরা বলেছিলাম, ২০২১ সালের মধ্যে তা ২০ ভাগে উন্নতি করব। ইতোমধ্যে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের ভর্তির হার শতকরা ১৬ হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি, ২০২১ সালের মধ্যে তা ২০ ভাগে উন্নতি হবে এবং ২০৩০ সালে তা ৩০ শতাংশ গিয়ে দাঁড়াবে।

মন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে সব শিক্ষার্থীদের কারিগরি শিক্ষা দেয়া হবে। শুধুমাত্র কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই নই, সাধারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ মাদরাসাগুলোতেও কারিগরি শিক্ষাযুক্ত করা হবে। যাতে করে সব শিক্ষার্থীদের কারিগরি বিষয়ে অন্ততপক্ষে একটি বা দুটি বিষয়ে জ্ঞান থাকে।

ধানের মূল্য নিয়ে দীপু মনি বলেন, এ বছর ধানের ব্যাপক ফলন হয়েছে তা দেশের জন্য ভালো। উৎপাদন বেশি হওয়ায় হয়তো বাজারে কৃষক তার ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না। সরকার ধান কেনা শুরু করেছে। সরকারের পক্ষ থেকে কৃষককে কৃষিকাজে নানা ক্ষেত্রে ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে। উন্নত প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে কৃষকরা কাজ করছেন বলে দেশে খাদ্যের উৎপাদন বাড়ছে এবং দেশের আরও উন্নতি হচ্ছে।

এর আগে মন্ত্রী সদর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ঘূর্ণিঝড় ফণি’র আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ঢেউটিন, চাল ও নগদ অর্থ বিতরণ এবং সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বয়স্ক ও বিধবা ভাতার বই বিতরণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম দেওয়ান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আরশাদ মিয়াজী প্রমুখ।

ইকরাম চৌধুরী/জেএইচ/পিআর