স্ত্রীর মৃত্যুর ১৫ ঘণ্টা পর চলে গেলেন স্বামীও

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি ঈশ্বরদী (পাবনা)
প্রকাশিত: ১২:৩৮ পিএম, ০৮ জুন ২০১৯

ঈদ উপলক্ষে শুক্রবার স্বামী-সন্তানসহ শ্বশুরবাড়ি থেকে বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় পাবনার ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান গৃহবধূ মারিয়া (২৩)। এ ঘটনায় তার কোলের শিশু আহাদ (৬ মাস) এবং স্বামী ওয়াহেদ আলী (২৮) গুরুতর আহত হন। শনিবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন স্বামী ওয়াহেদ আলী। বাবা-মাকে হারিয়ে এতিম হয়ে গেল শিশু আহাদ।

গতকাল শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে স্ত্রী মারিয়া ও শিশু সন্তান আহাদকে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে ঈশ্বরদী উপজেলার মিরকামারী গ্রাম থেকে শ্বশুরবাড়ি একই উপজেলার ছলিমপুর গ্রামে বেড়াতে যাচ্ছিলেন ওয়াহেদ আলী। পথিমধ্যে দাশুড়িয়া-পাকশী বিশ্বরোডের জয়নগরের তামান্না ফিলিং স্টেশনের কাছে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন তারা। সেখানে পাম্প থেকে তেল নেয়ার জন্য রাস্তা পার হওয়ার সময় অন্য দুটি মোটরসাইকেল এসে দ্রুত বেগে তাদেরকে ধাক্কা দিলে তিনজনই ছিটকে পড়েন। এ সময় দাশুড়িয়া থেকে পাকশীগামী একটি মাইক্রোবাস এসে চাপা দিলে মারিয়া ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

দুর্ঘটনায় মারিয়ার স্বামী ওয়াহেদ ও সন্তান আহাদ আহত হলে তাদেরকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়। ওয়াহেদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে শনিবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

৫ নং ছলিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মজিদ বাবলু মালিথা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওয়াহেদ আলীর মরদেহ গ্রামে এনে বেলা ১১টার দিকে জানাজা শেষে দাফন করা হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু এলাকা শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আলাউদ্দিন আহমেদ/আরএআর/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :