ফিল্মি স্টাইলে প্রেমিকাকে তুলে আনতে গিয়ে ধরা ৩ যুবক

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি ঈশ্বরদী (পাবনা)
প্রকাশিত: ০৮:২৮ এএম, ১২ জুন ২০১৯

বিয়ে করতে ব্যর্থ হয়ে প্রেমিকাকে অপহরণ করতে গিয়ে আটক হয়েছেন তিন যুবক। মঙ্গলবার বিকেলে বিয়ে পণ্ড করে রাতে কনেকে অপহরণ করতে গিয়ে অস্ত্রসহ পুলিশের হাতে আটক হন তারা।

ঈশ্বরদী উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের মিরকামারী মুন্নার মোড় সংলগ্ন ঘন্টু প্রামাণিকের ছেলে সান্টু প্রামাণিকের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলেন- একই এলাকার কোলেরকান্দি বটতলা এলাকার আইয়ুব কাজীর ছেলে আশিকুর রহমান (২২), মঞ্জুর রহমানের ছেলে সোহরাব হোসেন নাসিম (২৪) ও চরমিরকামারী গ্রামের মন্টু প্রামাণিকের ছেলে শামসুল হক (২৬)। পুলিশ আটকদের মধ্যে আশিকুর রহমানের কাছ থেকে এক রাউন্ড গুলিভর্তি একটি পিস্তল উদ্ধার করে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আকরাম হোসেন জানান, আশিকুর রহমানের সঙ্গে ওই মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। হঠাৎ করে এক সপ্তাহ আগে বাঘার এক ছেলের সঙ্গে ওই মেয়ের বিয়ের দিন ধার্য করে তার পরিবার। তাই আশিকুর অস্ত্রসহ কয়েকজন যুবক নিয়ে তাকে অপহরণ করার জন্য ওই বাড়িতে যান। এ সময় অপহরণে বাধা দিলে যুবকদের মারধরে ওই ছাত্রীর মা, বোনসহ কয়েকজন আহত হন। পরে তাদের চিৎকারে গ্রামবাসী জড়ো হয়ে অপহরণকারীদের ধাওয়া দিয়ে ৩ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ (উপ-পরিদর্শক) বিকাশ চক্রবর্তী জানান, মঙ্গলবার মিরকামারী মুন্নার মোড় এলাকার সান্টু প্রামাণিকের মেয়ের বিয়ের হওয়ার কথা ছিল। বিকেলে কে বা কারা ওই বিয়েটি পণ্ড করে দেয়। সন্ধ্যার পরে অজ্ঞাত ৮/১০ জনের একটি দল সান্টুর বাড়ির সামনে অবস্থান নেয়।

এই দলের তিনজন বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করে সান্টুর নাম ধরে ডাকাডাকিসহ গুলি করার হুমকি দেয়। বিয়ের কনেকে অপহরণের চেষ্টাকালে বাড়ির লোকজনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে এসে তাদের আটক করে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে যাওয়া হয়। এ সময় বাড়ির বাইরে থাকা অপহরণকারীরা পালিয়ে গেলেও ভেতরে থাকা তিনজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে এক রাউন্ড গুলি, ম্যাগজিনসহ একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়।

থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার আসামিরা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। অস্ত্র উদ্ধার ও অপহরণের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

আলাউদ্দিন আহমেদ/এফএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :