এসপির সহায়তায় দগ্ধ কলেজছাত্রীর স্থান হয়েছে এসি কক্ষে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নরসিংদী
প্রকাশিত: ০৫:১২ পিএম, ১৫ জুন ২০১৯

নরসিংদীতে কলেজছাত্রী ফুলন রানী বর্মণের (২২) শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়ার ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে অগ্নিদগ্ধ ফুলনের বাবা যোগেন্দ্র চন্দ্র বর্মন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা দুইজনকে আসামি করে নরসিংদী সদর মডেল থানায় মামলাটি করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে নরসিংদী পৌর এলাকার বীরপুর মহল্লায় ফুলনের শরীরে আগুন লাগিয়ে দেয় দুবৃর্ত্তরা। ফুলন নরসিংদীর উদয়ন কলেজ থেকে গত বছর এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ঘটনার পর পুলিশ রায়পুরা থেকে ফুলনের কথিত প্রেমিক সজিবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, ঘটনার পরপরই ভিকটিমের পরিবারকে আইনি সহায়তা দেয়ার পাশাপাশি চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা হয়েছে। পুলিশ সুপারের সহায়তায় দগ্ধ কলেজছাত্রীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের এসি কক্ষে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটনে পুলিশের কয়েকটি টিম তদন্ত করছে। পাশাপাশি ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

পুলিশ ও দগ্ধ কলেজছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা জানান, ফুলন রানী বর্মণ রাতে সাড়ে ৮টার দিকে তার মামার সঙ্গে দোকানে কেক আনতে যান। মামা কেক কিনে দিয়ে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। ফুলন কেক নিয়ে বাড়ির আঙ্গিনায় পৌঁছালে অজ্ঞাত পরিচয় দুইজন দুর্বৃত্ত তার হাত মুখ চেপে ধরে পাশের একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। পরে কেরোসিন ঢেলে তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

সঞ্জিত সাহা/আরএআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :