স্ত্রী-সন্তানকে নিতে আসায় জামাইকে শিকলে বেঁধে রাখলেন শাশুড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ১১:২৭ এএম, ২৩ জুন ২০১৯

স্ত্রী ও সন্তানকে নিজের বাড়িতে নিতে চাওয়ায় মেয়ের জামাইকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে শাশুড়ির বিরুদ্ধে। শনিবার বিকেলে বরিশাল নগরীর কাজীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে মেয়ের জামাই সজীব বেপারীকে উদ্ধার এবং শাশুড়ি রহিমাকে আটক করে কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ।

সজীব বরিশালের মুলাদী উপজেলার মৃধার হাট গ্রামের কামাল বেপারির ছেলে।

সজীব জানান, এক বছর আগে রহিমার মেয়ে বৃষ্টিকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর থেকে বৃষ্টিকে নিজের বাড়িতে আটকে রাখেন শাশুড়ি রহিমা বেগম। এরমধ্যে তাদের একটি মেয়েও হয়েছে। তিনি বিভিন্ন সময় বৃষ্টিকে নিজের বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি চেয়েও পাননি। তার শাশুড়ি কোনোভাবেই অনুমতি দিতেন না। এক বছরে একবারের জন্যও বৃষ্টিকে শ্বশুরবাড়ি যেতে দেননি রহিমা।

সর্বশেষ শনিবার দুপুরে শাশুড়ির কাছে বৃষ্টি ও সন্তানকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি চাইলে তিনি না করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে জেদ ধরলে শাশুড়ি ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন। এক পর্যায়ে তাকে আটকে লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে ফেলেন এবং নির্যাতন করেন। এ ঘটনায় তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন।

সজীব বলেন, তার স্ত্রীও মায়ের কাছে অসহায়। এ কারণে সে কোনো কথা না বলে চুপ থাকে। এ ঘটনা দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার ও শাশুড়িকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন, মেয়ে জামাইকে নির্যাতনের কারণে শাশুড়ি রহিমা বেগমকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]