এবার রাজশাহীতে শিশুকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৩:২০ পিএম, ১৯ জুলাই ২০১৯

রাজশাহীর বাগমারায় মিজানুর রহমান মিজান নামে ছয় বছরের এক শিশুকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌর এলাকার সূর্যপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। ওই সময় একই ঘরে শিশুটির মা-বাবাও ঘুমিয়েছিলেন।

আহত মিজান ওই এলাকার আতিকুর রহমানের ছেলে। রাতেই মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে হাসপাতালের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই শিশু।

আহত শিশুটির মা ফিরোজা বেগম জানান, প্রচণ্ড গরমের কারণে তারা ঘরের মেঝেতে শুয়েছিলেন। শিশু মিজান শুয়েছিল খাটের ওপরে। গভীর রাতে ছেলের চিৎকারে তাদের ঘুম ভেঙে যায়। রক্তাক্ত শিশুকে রাতেই নেয়া হয় উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। পরে তাকে রামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। অস্ত্রপচার শেষে মিজান শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

রাতে শোয়ার ঘরের দরজা খোলা ছিল। শিশু মিজান শুয়েছিল জানালার পাশেই। ঘরে প্রবেশ করে অথবা জানালা দিয়ে কেউ তার গলাকাটার চেষ্টা চালায়। তবে কাউকে ঘরের ভেতর থেকে পালাতে দেখেননি। এই ঘটনার কারণ এবং কারা এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন তাও নিশ্চিত নন তারা।

এ বিষয়ে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। শোয়ার ঘরে ড্রেসিং টেবিলের ওপর ভাঙা কাঁচ পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এই কাঁচ ভেঙে শিশুটির গলায় পড়েছিল। অন্য কারণও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

তবে ছেলের গলা থেকে রক্তক্ষরণ দেখে আতঙ্কিত হয়ে তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে ড্রেসিং টেবিলের কাঁচ ভেঙে গেছে বলে দাবি করেছেন শিশুটির মা ফিরোজা বেগম।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার ছয় থেকে সাত বছর বয়সী এক শিশুর কাটা মাথা ব্যাগে ভরে ঘোরাফেরা করার সময় নেত্রকোনা শহরের নিউ টাউন এলাকায় এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করে স্থানীয়রা।

ফেরদৌস সিদ্দিকী/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]