১৬ ঘণ্টা পর সাগরে ভেসে উঠল কিশোরের লাশ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০১:০১ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০১৯

বন্ধুদের সঙ্গে সৈকতে ফুটবল খেলতে নেমে সাগরে ভেসে গিয়ে নিখোঁজ মোহাম্মদ আলীর (১৪) মরদেহ ২০ ঘণ্টা পর উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে টেকনাফ সৈকতের লম্বরী ঘাট পয়েন্ট থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে দমকল বাহিনী। এর আগে বুধবার বিকেল ৪টার দিকে টেকনাফ বিচের মহেশখালীয়া পাড়া পয়েন্টে ভেসে যায় মোহাম্মদ আলী।

মোহাম্মদ আলী টেকনাফ পৌরসভার ডেইল পাড়া এলাকার রমিজ আহমেদের ছেলে। সে স্থানীয় বায়তুশ শরফ মাদরাসার নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, বুধবার মোহাম্মদ আলীর ভেসে যাওয়ার খবর পাওয়ার পরপরই ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে যায়। তাদের সঙ্গে যোগ দেয় কোস্টগার্ড ও পুলিশ। রাত ১০টা পর্যন্ত চেষ্টা করেও তার হদিস মেলেনি। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে সৈকতের লম্বরীপাড়া ঘাট পয়েন্ট থেকে ভাসমান অবস্থায় মোহাম্মদ আলীর মরদেহ উদ্ধার করে দমকল বাহিনীর সদস্যরা।

ওসি আরও জানান, মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশকে হস্তান্তর করা হয়। পুলিশ আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে।

স্থানীয়দের ধারণা, মেরিন ড্রাইভ রোড ও সমুদ্রের ভাঙন রক্ষায় সৈকতের তীরে জিও টেক্সটাইল ব্যাগ দেয়ায় সেখানে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সেই গর্তের পানিতে তলিয়ে মোহাম্মদ আলী মুহূর্তে গভীর সমুদ্রে ভেসে যায়।

উল্লেখ্য, গত ১০ আগস্ট (শনিবার) সাগরে গোসল করতে নেমে একইভাবে মৃত্যু হয় রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সাইন্স বিভাগের শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম ও মোহাম্মদ শরীফের।

সায়ীদ আলমগীর/এফএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :