শিশুর ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা ঘিরে রহস্য

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ১১:৪৯ এএম, ২২ আগস্ট ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় আজমান (১১) নামে এক শিশুর ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা নিয়ে রহস্য তৈরি হয়েছে। বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে সদর উপজেলার চিলোকূট এলাকায় নানার বাড়ি থেকে আজমানের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজমান জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার আড়াইসিধা ইউনিয়নের আড়াইসিধা গ্রামের ইমরান মিয়ার ছেলে। পুলিশের ধারণা ঘটনাটি আত্মহত্যা নয়। সেজন্য মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আজমানের নানি মেহেরা বেগমের বরাত দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান জাগো নিউজকে জানান, গত এক মাস ধরে আজমান তার নানির সঙ্গে চিলোকূট গ্রামে থাকছে। বুধবার কোনো এক জায়গায় শিশুর মাথাকাটা লোকের কথা শুনে সে ভয় পেয়েছিল। পরে বাড়ি ফিরে দুপুরের খাবার খেয়ে নিজ ঘরের দরজা বন্ধ করে উচ্চ শব্দে টিভি দেখছিল। বিকেলে নানি মেহেরা বেগম ঘরের দরজা খুলে দেখেন লুঙ্গি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় আজমান ঝুলে আছে।

তিনি আরও জানান, আজমানের মরদেহ দাফনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছিল। কিন্তু রাতে পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে সন্দেহজনক মনে হওয়ায় ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। মরদেহের আলামত দেখে ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে মনে হচ্ছে না। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

আজিজুল সঞ্চয়/এফএ/জেআইএম