চাঁদপুরে আবারও ধরা পড়ল বিষধর ‘রাসেল ভাইপার’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৪:৪৫ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

চাঁদপুরে ফের ধরা পড়েছে ‘রাসেল ভাইপার’ নামের বিষধর সাপ। মঙ্গলবার বিকেলে সাপটিকে চাঁদপুরের বন বিভাগ ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ভেনম রিসার্চ সেন্টারের প্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

চাঁদপুর শহরের নিউ ট্রাক রোড এলাকার গাজী বাড়ির শামীম গাজী ওরফে সামু নামের এক যুবক গত বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) শহরের বড়স্টেশন মেঘনা নদীর তীরে কচুরিপানার ওপর থেকে সাপটি ধরে। সাপটি লম্বায় প্রায় ৩ ফুট।

শামীম গাজী বলেন, বড়স্টেশন এলাকায় সাপটি দেখে লোকজন চিৎকার-চেঁচামেচি করে। আমি স্থানীদের সহায়তায় খাঁচায় ভরে সাপটি বাড়িতে নিয়ে যাই এবং বন বিভাগকে অবহিত করি। পরবর্তীতে জানতে পারি, এটি ‘রাসেল ভাইপার’ নামের বিষধর সাপ।

এর আগে গত ১৯ আগস্ট দুপুরে চাঁদপুরে শহরের কোড়ালিয়া এলাকায় মেঘনা নদীর পাশে একটি পুকুর থেকে সবুজ নামের এক যুবক একই ধরনের আরেকটি বিষাক্ত রাসেল ভাইপার সাপ উদ্ধার করে। পরে ২০ আগস্ট চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ভেনম রিসার্চ সেন্টারের প্রতিনিধিদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

চাঁদপুর সামাজিক বনায়ন ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম বলেন, আমরা সাপের খবর পেয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ভেনম রিসার্চ সেন্টারের প্রতিনিধিদের খবর দেই। খবর পেয়ে তারা চাঁদপুরে আসেন। তাদের কাছে মঙ্গলবার সাপটি হস্তান্তর করা হয়। এটি চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটিতে রাখা হবে। তারা সেখানে গবেষণার কাজে লাগাবেন।

গবেষক দলের প্রধান মোহাম্মদ নোমান জানান, রাসেল ভাইপার একটি দুর্লভ সাপ। সাপটি অনেক বিষধর। এটি ভারত, চীন, থাইল্যান্ডসহ এশিয়ার কয়েকটি দেশে আছে। বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের কিছু জেলায় এবং দক্ষিণাঞ্চলের কয়েকটি জেলায় সাপটির অস্তিত্ব মিললেও চাঁদপুরে এটি দ্বিতীয়বারের মতো ধরা পড়ল।

পড়ুন : সাপ সংক্রান্ত আরও খবর

ইকরাম চৌধুরী/এমবিআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]