শরীয়তপুরে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ১২:৪৬ এএম, ২২ অক্টোবর ২০১৯

শরীয়তপুরে কিশোরীকে উত্যক্ত করায় মো. মামুন বেপারী (২২) নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ডামুড্যা উপজেলার পূর্ব ডামুড্যা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বড়নওগাঁ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. মামুন বেপারী ওই গ্রামের জলিল বেপারীর ছেলে। এ ঘটনায় সাহেব আলী মাল (৩৮) ও তার ভাই বিল্লাল মালকে (১৯) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার পূর্ব ডামুড্যা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বড়নওগাঁ গ্রামের সাহেব আলী মালের মেয়ে সম্পা আক্তারকে (১৪) দীর্ঘদিন যাবৎ কুপ্রস্তাব ও উত্যক্ত করতো একই গ্রামের জলিল বেপারীর ছেলে মামুন বেপারী। সোমবার বিকেলে সম্পা বাড়ির ঘাটায় গেলে মামুন আবার কুপ্রস্তাব দেয়। সম্পা তার বাবা সাহেব আলীর কাছে বিষয়টি বলে। সাহেব আলি মামুনের বাড়িতে গিয়ে এ বিষয়ে প্রতিবাদ করলে দু’জনের মাঝে বাকবিতণ্ডা হয়।

বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে সাহেব আলী মামুন বেপারীর পেটে ছুরিকাঘাত করে আহত করে। মামুন আহত অবস্থায় ঘর থেকে দা এনে সাহেব আলী মাল ও তার ভাই বিল্লাল মালকে কুপিয়ে আহত করে। পরে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে মামুনকে ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়, কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করে। এ ঘটনায় সাহেব আলী ও তার ভাই বিল্লালকে ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. ফাতেমা মাহজাবিন জানান, শরীরে ক্ষত অবস্থায় রোগীটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্বজনরা। পরীক্ষা করে দেখি হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

ডামুড্যা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মো. ছগির হোসেন/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]