জমি নিয়ে বিরোধে ছেলের সামনে বাবাকে ছুরি মেরে খুন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নরসিংদী
প্রকাশিত: ০৫:৪৪ পিএম, ১১ নভেম্বর ২০১৯
প্রতীকী ছবি

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায় জমি-সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের ছুরির আঘাতে মো. মানিক মিয়া (৫০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

রোববার (১০ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার রায়পুরা ইউনিয়নের মাহমুদপুর ঈদগাহসংলগ্ন ব্রিজের ওপর এ ঘটনা ঘটে। নিহত মানিক একই এলাকার মৃত মুনতাজ মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় সোমবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে নিহতের স্ত্রী জাহেদা বেগম পাঁচজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৬-৭ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। এ মামলায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলেন মাহমুদপুর গ্রামের ইব্রাহীম ও তার ছেলে মাসুদ।

রায়পুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক লায়লা ইয়াছমিন জানান, রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মানিককে হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্বজনরা। হাসপাতালে আনার আগেই মারা যান তিনি।

নিহতের পরিবার জানায়, তিন মাস ধরে জমি-সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে প্রতিবেশী মো. ইব্রাহীমসহ কয়েকজনের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয় মানিক মিয়ার। এরই জেরে রোববার রাতে স্থানীয় হাসিমপুর মৌলভীবাজার থেকে ছেলে রাজিবকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ইব্রাহীম তার লোকজন নিয়ে মানিক ও তার ছেলে রাজিবকে ঘিরে ফেলে।

ওই সময় ইব্রাহীমের ছেলে মাসুদ ছুরি দিয়ে মানিকের পেটে আঘাত করলে সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে পড়ে যান। ছেলে রাজিব দৌড়ে গিয়ে বাড়ির লোকজনকে খবর দিলে তারা এসে আহত অবস্থায় মানিককে রায়পুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

রাজিব বলেন, বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে মাহমুদপুর ব্রিজের ওপর এসে পৌঁছার পর ইব্রাহীম ও তার ছেলে মাসুদ এবং বাদলসহ আটজন লোক আমাদের ঘিরে ফেলে। তখন মাসুদ আমার বাবার পেটে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। অন্ধকার থাকায় ওই সময় তিনজন ছাড়া বাকি লোকদের চিনতে পারিনি।

এ ব্যাপারে রায়পুরা থানা পুলিশের এসআই দেব দুলাল বলেন, এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সঞ্জিত সাহা/এএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]