স্ত্রীকে পিটিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দিলেন স্বামী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ১২:৪৯ পিএম, ২২ নভেম্বর ২০১৯

বগুড়া নন্দীগ্রামে তুচ্ছ ঘটনায় মার্জিয়া খাতুন রুপালী (২২) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন তার স্বামী। এ ঘটনায় শুক্রবার (২২ নভেম্বর) সকালে স্বামী মোরশেদুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। উপজেলার ইউছুবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নাটোরের সিংড়া উপজেলার পাঁচপাকিয়া গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে মার্জিয়া খাতুন রুপালীর সঙ্গে ৯ মাস আগে নন্দীগ্রাম উপজেলার মোশারফ হোসেনের ছেলে ট্রাকচালক মোরশেদুলের বিয়ে হয়।

রুপালীর মা মঞ্জুয়ারা বেগম জানান, বিয়ের সময় নগদ দেড় লাখ টাকা যৌতুক দেয়া হয়। বিয়ের পর জামাই পাকা বাড়ি তৈরির কাজ শুরু করে। এ কারণে আরও দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। রুপালী বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে না পারায় তাকে স্বামী ও শাশুড়ি শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো।

স্থানীয়রা জানান, গত বুধবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে রুপালীর হাত থেকে হরলিক্সের বয়াম পড়ে ভেঙে যায়। এ নিয়ে শাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়া হয় রুপালীর। স্বামী মোরশেদুল বাড়ি ফিরে এ ঘটনা শুনে বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে স্ত্রীকে মারধর করে। এরপর তাকে বাথরুমে নিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দেয়। এ সময় শাশুড়ি বেবী খাতুন বাড়িতে ছিলেন না। তিনি বাড়ি ফিরে রুপালীর মাথা ন্যাড়া করা দেখে চুলগুলো ফেলে দেন এবং তাকে ঘরে আটকে রাখেন। রুপালী মোবাইল ফোনে ঘটনাটি বাবা-মাকে জানায়। শুক্রবার সকালে তার মা মঞ্জুয়ারা বেগম জামাই বাড়ি এসে গ্রামের লোকজনের সহযোগিতায় মেয়েকে উদ্ধার করেন। পরে পুলিশে খবর দেয়া হলে পুলিশ মোরশেদুলকে আটক করে।

নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শওকত কবীর বলেন, মোরশেদুলকে আটক করা হয়েছে। স্ত্রীকে মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার পেছনে যৌতুক ছাড়া আর কী কী কারণ রয়েছে সেগুলো অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

লিমন বাসার/আরএআর/পিআর