শিক্ষার্থীদের অভিযোগ জানতে স্কুলে ‘ইউএনও বক্স’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৩:০২ পিএম, ২৯ জানুয়ারি ২০২০

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ অথবা সমস্যার কথা জানতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার বিদ্যালয়গুলোতে বসানো হচ্ছে ‘ইউএনও বক্স’। এই বক্সে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ জানানোর পর সেটি সমাধানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)। অভিযোগের পাশাপাশি পরামর্শও জানাতে পারবে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। প্রথমিকভাবে দুটি বিদ্যালয়ের নোটিশ বোর্ডের পাশে বসানো হয়েছে ইউএনও বক্স।

জানা গেছে, শিক্ষার্থীদের সকল সমস্যা ও অভিযোগের কথা জানতে আশুগঞ্জ উপজেলার রওশন আরা জলিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয়ে দুটি ইউএনও বক্স বসানো হয়েছে। গত সোমবার (২৭ জানুয়ারি) কাঠ ও স্বচ্ছ কাঁচের তৈরি ইউএনও বক্স বসানো হয়। মূলত পরিবার ও স্কুলের শিক্ষকদের কাছে বলতে না পারা কথাগুলো জানতেই এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। সংশ্লিষ্ট দফতরের অনুমতি পেলে ধাপে ধাপে উপজেলার অন্যান্য বিদ্যালয়গুলোতেও বসবে ইউএনও বক্স। প্রতি সপ্তাহে একবার করে এই বক্স খোলা হবে। এরপর শিক্ষার্থীদের প্রয়োজন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন ইউএনও।

রওশন আরা জলিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, এই ইউএনও বক্সের মাধ্যমে তারা তাদের না বলা কথাগুলো জানাবে। অনেক সময় স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে বখাটেরা উত্ত্যক্ত করে, ভয়ে বলতে না পারা সেই কথাও এখন জানাতে পারবে তারা।

UNO-Box01

রওশন আরা জলিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রেজাউল আজাদ জানান, ইউএনও বক্সের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের অভিযোগ-পরামর্শ জানাতে পারবে। ইউএনও নিজেই এই বক্সটি তদারকি করবেন। এতে শিক্ষার্থীদের সমস্যাগুলোরও দ্রুত সমাধান হবে বলে আশা করি।

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাজিমুল হায়দার বলেন, আমরা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে বিভিন্ন সময় সমাবেশ করি। কিন্তু খোলামেলা ওই সমামেশে অনেক শিক্ষার্থী-অভিভাবক তাদের সমস্যা ও অভিযোগের কথা বলতে পারে না। সেজন্যই এই ইউএনও বক্স বসানো হয়েছে। আমি নিজে এই বক্স তদারকি করব। প্রতি সপ্তাহে আমি অথবা আমার একজন প্রতিনিধি বক্সটি খুলবেন। শিক্ষার্থী অথবা অভিভাবকদের কোনো অভিযোগ বা পরামর্শ থাকলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজিজুল সঞ্চয়/আরএআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]