কবর থেকে তুলে রাস্তায় ফেলা হলো শিশুর মরদেহ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ১১:০১ এএম, ১১ জুলাই ২০২০

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় এক নবজাতকের মরদেহ কবর থেকে তুলে রাস্তায় ফেলে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) সকালে উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের ঘাটুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটলেও রাতে বিষয়টি জানাজানি হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফেনী সদর উপজেলার বাসিন্দা সাইফুল ইসলামের স্ত্রী স্বপ্না বেগম গত ৭ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খ্রিস্টিয়ান মেমোরিয়াল হাসপাতালে কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। কয়েক মাস ধরে তিনি বাবার বাড়ি ঘাটুরায় অবস্থান করছিলেন। নির্ধারিত সময়ের আগে ভূমিষ্ঠ শিশুটি বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে মারা যায়। সকাল ৭টার দিকে শিশুটির লাশ ঘাটুরার কবরস্থানে দাফন করা হয়।

শিশুটির বাবা সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করেন, তারা আহমদিয়া সম্প্রদায়ের হওয়ায় বিদ্বেষীরা এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। তার সন্তানের লাশ কবর থেকে তুলে কবরস্থানের সীমানাপ্রাচীরের বাইরের রাস্তায় ফেলে রাখা হয়।

তবে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সেটা তারা জানতে পারেননি বলে জানান সাইফুল। পরবর্তী সময়ে পুলিশি পাহারায় সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কান্দিপাড়ায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে শিশুটির লাশ দাফন করা হয়।

সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাদ হাজারী আঙ্গুর জানান, ওই সম্প্রদায়ের লোকজনকে এ গ্রামের কবরস্থানে দাফনে স্থানীয়দের আপত্তি আছে। খবর পেয়ে গিয়ে দেখি লাশ কবরস্থানের বাইরে। পরে কান্দিপাড়া এলাকায় তাদের সম্প্রদায়ের কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোজাম্মেল হোসেন রেজা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। দুই পক্ষ নিজেরাই বিষয়টি সমাধান করে ফেলেছে।

আজিজুল সঞ্চয়/এসএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]