অস্ত্র ও চাঁদাবাজির মামলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ০৯:২৫ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০
গ্রেফতার আমিনুর রহিম পল্লব

চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও সন্ত্রাসীসহ নানা অপকর্মে জড়িত থাকায় পুলিশের অভিযানে সহযোগীসহ গ্রেফতার কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুর রহিম পল্লবের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও অস্ত্র আইনে দুটি মামলা হয়েছে। রোববার দুপুরে গ্রেফতার দুইজনকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, শহরের থানাপাড়া এলাকার বাসিন্দা আমিনুর রহিম পল্লব দলীয় নেতাদের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজিসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিলেন। পল্লবের বর্তমানে কোনো পদ-পদবি না থাকলেও দলীয় প্রভাব খাটিয়ে নেতা বনে যান। এছাড়া নিজ বাহিনী গঠন করে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে টেন্ডারবাজি, পৌর বাজারের নিয়ন্ত্রণসহ ব্যবসায়ী ও স্থানীয় লোকজনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে অর্থ আদায় করে আসছিলেন। তার এসব অপকর্মে এলাকাবাসী ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ ছিলেন।

শনিবার দুপুরে শহরের নবাব-সিরাজউদ্দৌলা সড়ক সংলগ্ন নিজ অফিস থেকে পল্লবকে গ্রেফতার করা হয় এবং তার স্বীকারোক্তি মতে রাতে অভিযান চালিয়ে দুটি বড় তলোয়ার ও চারটি ছোরা উদ্ধার করে পুলিশ। পরে পল্লবের অন্যতম সহযোগী তাহেরকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশি অভিযানের পর ভুক্তভুগী ব্যবসায়ী মহব্বত আলী বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় পল্লবের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা করেন। এছাড়া কুষ্টিয়া ডিবি পুলিশের এসআই কামরুজ্জামান লিটন বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে আরেকটি মামলা করেন।

কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, চাঁদাবাজিসহ নানা অভিযোগে পল্লবকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পল্লবের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে। গ্রেফতার দুইজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আল-মামুন সাগর/এএম/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]