পুলিশের চাকরিতে জালিয়াতি : আ.লীগ-ছাত্রলীগের দুই নেতা কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ০২:৫৬ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২০

পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরির নিয়োগ পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রইসুল আলম রিপন এবং জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজওয়ানুল ইসলাম বাবুকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার সকালে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালে বরগুনায় পুলিশের কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষায় চাকরিপ্রার্থী হয়ে আবেদন করেন বরগুনার পৌর সুপার মার্কেটের কাপড় ব্যবসায়ী মো. মজিবুর রহমানের ছেলে রাজু। নিয়োগ পরীক্ষার লিখিত পরীক্ষায় মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে রাজুর পরিবর্তে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজওয়ানুল ইসলাম বাবু। পরে এ জালিয়াতি ধরা পড়ে।

এ ঘটনায় ২০১৭ সালের ২১ এপ্রিল বরগুনা সদর থানায় কর্মরত সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শামীম রেজা মামলা করেন।

মামলার তদন্তের সময় এ জালিয়াতির টাকা চেকের মাধ্যমে পরিশোধের তথ্য পায় পুলিশ। পরে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বরগুনা পৌরসভার কাউন্সিলর রইসুল আলম রিপনের কাছে এ জালিয়াতির জন্য জমা থাকা পাঁচ লাখ টাকার একটি চেক জব্দ করে পুলিশ।

এ ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রইসুল আলম রিপন এবং জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজওয়ানুল ইসলাম বাবুসহ চারজনের বিরুদ্ধে ওই বছরের ৫ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তৎকালীন বরগুনার সিআইডি ইন্সপেক্টর সিরাজুল ইসলাম।

এ মামলায় জামিনে থাকা রইসুল আলম রিপন এবং রেজওয়ানুল ইসলাম বাবুর জামিনের মেয়াদ শেষ হলে বরগুনা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে পুনরায় জামিনের আবেদন করেন তারা। পরে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত করে বরগুনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়াছিন আরাফাতের আদালতে পাঠান।

এ বিষয়ে আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মজিবুল হক কিসলু বলেন, আসামিরা নির্দোষ। অন্যায়ভাবে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। আমরা তাদের জামিনের জন্য আবেদন করব।

সাইফুল ইসলাম মিরাজ/এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]