ভারতে পাচার তিন কিশোর-কিশোরী ফিরল দুই বছর পর

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৩:১৪ এএম, ২৩ অক্টোবর ২০২০

ভালো কাজের প্রলোভনে পড়ে দুই বছর আগে ভারতে পাচার হওয়া এক কিশোর ও দুই কিশোরীকে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের কাছে তাদের হস্তান্তর করে পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা।

পরবর্তীতে আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদের বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। সেখান থেকে বাংলাদেশ মহিলা সমিতি নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের গ্রহণ করেছে।

ফেরত কিশোর-কিশোরী হলো- যশোরের এসএন বিশ্বাসের ছেলে আল-আমিন বিশ্বাস (১৭), নড়াইলের মালিয়াট গ্রামের যুঁথী রায় (১৬) ও মুন্সিগঞ্জের দেওপাড়া বড়বাড়ি গ্রামের শিউলি আক্তার (১৯)।

বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার আরশাফ আলী জানান, সংসারে অভাব অনটনের কারণে এসব কিশোর-কিশোরী দালালের খপ্পরে পড়ে ২০১৮ সালের ২১ নভেম্বর সীমান্তের অবৈধপথে ভারতে পাড়ি জমায়। পরে ভারতের পুলিশ সদস্যরা তাদের অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে আটক করে।

সেখানকার একটি এনজিও সংস্থা তাদের জেল থেকে ছাড়িয়ে কলকাতার হাবড়ার ‘এসএমএম’ নামের একটি শেল্টার হোমে রাখে। পরবর্তীতে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্বদেশ প্রত্যাবাসন আইনে তাদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হয়।

বাংলাদেশ মহিলা সমিতির আইনজীবী ও যশোর শাখার প্রোগ্রাম অফিসার রেখা বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, পাচারের শিকার কিশোর-কিশোরীদের পরিবার যদি পাচারকারীদের শনাক্ত করে মামলা করতে চায়, তাহলে তাদের আইনি সহয়তা করা হবে।

বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ফেরত আসা তিন কিশোর-কিশোরীকে তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য বাংলাদেশ মহিলা সমিতির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মো. জামাল হোসেন/বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]