বিড়াল হারিয়ে লঙ্কাকাণ্ড!

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ০৯:৩৯ এএম, ২৯ অক্টোবর ২০২০

হঠাৎ প্রিয় বিড়ালটি উধাও। সারা বাড়ি খুঁজেও সন্ধান নেই। আদরের বিড়ালটিকে হারিয়ে মুষড়ে পড়েন কণ্ঠশিল্পী সিঁথি সাহা। পোষা প্রাণীটি ফিরে পেতে শহরময় মাইকিং করান তিনি। থানায় সাধারণ ডায়রিও (জিডি) করেন।

তবে দিন শেষে বিড়ালটির খুঁজে পেয়েছেন তিনি। বুধবার বিড়াল নিয়ে এমন লঙ্কাকাণ্ড ঘটেছে কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়ায়।

সিঁথি সাহা জানান, অনেকদিন ধরে তিনি একটি বিড়াল পুষছেন। বিড়ালটি তার খুব আদরের। দুর্গাপূজা উপলক্ষে কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে কুষ্টিয়ায় বাবার বাসায় এসেছিলেন তিনি। যথারীতি পোষা বিড়ালটিও তার সঙ্গে ছিল। বুধবার বেলা ১১টার দিকে শহরের আমলাপাড়ার বাসা থেকে হঠাৎ বিড়ালটি উধাও হয়ে যায়।

তিনি সেটি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। ম্যাঁওকে (বিড়াল) না পেয়ে আশপাশের বাড়িতে ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করেন। কান্নাও করেন। বিড়ালের খোঁজে এলাকায় মাইকিংও করেন।

তিনি কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভির আরাফাতকে ফোন করে বিড়াল খুঁজে পেতে সাহায্য চান। এরপর দুপুর ২টার দিকে কুষ্টিয়া মডেল থানায় গিয়ে জিডি করেন।

এরপর উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুমন কাদেরী এলাকায় গিয়ে বিড়ালটির বিষয়ে খোঁজখবর নিতে থাকেন। এক পর্যায়ে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে তিনি দেখতে পান, বাড়ির দরজার সামনে বিড়ালটি দাঁড়িয়ে আছে। এতে মনটা ভরে ওঠে তার।

সিঁথি বলেন, কেউ হয়তো বিড়ালটি ধরে নিয়ে গিয়েছিল। পরে পুলিশের তড়িৎ পদক্ষেপের কারণে ফিরিয়ে দিয়েছে। এ জন্য পুলিশ সুপার (এসপি) এসএম তানভীর আরাফাতকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তিনি দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ায় শখের বিড়ালটি ফেরত পেলাম। সব কৃতিত্ব পুলিশের।

সিঁথির বাবা সমির সাহা বলেন, বিড়ালটি হারিয়ে যাওয়ার পর থেকে মেয়ে নাওয়া-খাওয়া ছেড়ে দিয়েছিল। সন্ধ্যার পর প্রিয় প্রাণীটিকে কাছে পাওয়ার পর মেয়ে খাওয়া-দাওয়া করেছে।

জানতে চাইলে এসপি এসএম তানভীর আরাফাত বলেন, কুষ্টিয়া পুলিশ যেকোনো প্রয়োজনে জনগণের সেবায় সবসময় কাজ করছে এবং করে যাবে।

উল্লেখ্য, সিঁথি রবীন্দ্রসংগীত, লোকসংগীত ও চলচ্চিত্রের গান করেন। তার চারটি গানের অ্যালবাম বেরিয়েছে।

এফএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]