বিষধর রাসেল ভাইপার ধরে বস্তায় ভরে বাড়িতে নিয়ে এলেন যুবক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ভোলা
প্রকাশিত: ১২:৩৮ পিএম, ০১ ডিসেম্বর ২০২০

ভোলায় বিষধর সাপ ‘কিলিংমেশিন’ খ্যাত রাসেল ভাইপার উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) সকালে ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ধনিয়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের বাড়ি থেকে রাসেল ভাইপার সাপটি উদ্ধার করে ভোলা বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা।

রাসেল ভাইপার পৃথিবীর ভয়ংকর বিষধর সাপের মধ্যে পঞ্চম। এ সাপের ভ্যাকসিন আজ পর্যন্ত আবিস্কার হয়নি বলে জানিয়েছেন ভোলা বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার সন্ধ্যার দিকে স্থানীয় অটোচালক মো. ইসমাইল হোসেন (৩৫) হাতমুখ ধোয়ার জন্য ওই এলাকার নদীর পাড়ে যান। ওই সময় নদীর তীরের ব্লকের ফাঁক দিয়ে তিনি সাপটি যেতে দেখেন।

পরে সাপের লেজ ধরে তিনি উপরে ছুড়ে মারেন। এরপর তিনি একটি প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে সাপটি বাড়িতে নিয়ে আসেন।

ইসমাইল হোসেন জানান, আমি সাপটিকে দেখে অজগর সাপ ভেবেছিলাম। যদি ব্লকের ভেতরে আশ্রয় নেয় তাহলে হয়ত কাউকে কামড় দিতে পারে। তাই সাপটিকে দেখেই লেজে ধরে ওপরে উঠিয়ে বস্তায় ভরে রাখি। পরে বন বিভাগকে সংবাদকর্মীদের মাধ্যমে খবর দিই।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ অফিসারদের মাধ্যমে জানতে পারলাম এটি অনেক ভয়ংকর সাপ। কিন্তু আমি এটা আগে বুঝতে পারিনি।

ভোলা বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম জানান, আমরা একজন সংবাদকর্মীর মাধ্যমে সোমবার রাতে জানতে পারি একটি সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে মঙ্গলবার সকালে সাপটিকে উদ্ধার করে আমাদের অফিসে নিয়ে আসা হয়েছে। এটি কিলিংমেশিন খ্যাত রাসেল ভাইপার সাপ। আমরা এটিকে বিকেলের মধ্যে কোনো গভীর বনে অবমুক্ত করব।

জুয়েল সাহা বিকাশ/এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]