জালে একঝাঁক ভোলা মাছ, বিক্রি হলো ৬ লাখে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০২:৪০ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০২১

সুন্দরবনের রায়মঙ্গল নদীতে রফিকুল ইসলাম নামের এক জেলের জালে ধরা পড়েছে ১২৬টি ভোলা মাছ। প্রত্যেকটি মাছের ওজন ৭-২০ কেজি পর্যন্ত। ৫৯০ টাকা কেজি দরে মাছগুলো বিক্রি করে রফিকুল ইসলাম পেয়েছেন পাঁচ লাখ ৯০ হাজার টাকা। এতেই ভাগ্য খুলেছে এই মৎস্যজীবীর।

মৎস্যজীবী রফিকুল ইসলাম সাতক্ষীরার শ্যামনগরের রমজাননগর ইউনিয়নের টেংরাখালি গ্রামের বাসিন্দা।

রফিকুল ইসলাম জানান, সুন্দরবন সংলগ্ন রায়মঙ্গল নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে নদীতে জোয়ার আসে। সেই জোয়ারে ফেলা জালে ধরা পড়ে একঝাঁক লাউভোলা মাছ। ১২৬টি মাছের ওজন হয়েছে প্রায় এক হাজার ৫১ কেজি।

তিনি বলেন, শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) পাঁচ লাখ ৯০ হাজার টাকায় মাছগুলো বিক্রি করেছি। একই এলাকার মাছ ব্যবসায়ী নূর হোসেন গাজী মাছগুলো কিনেছেন।

শ্যামনগর বংশীপুর সোনার মোড় এলাকার মদিনা ফিশের সত্ত্বাধিকারী হারুনুর রশিদ বলেন, মাছ ব্যবসায়ী নুর হোসেন গাজী আমার মৎস্যসেটে মাছগুলো ছয় লাখ ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করে গেছেন। সামুদ্রিক মাছ হিসেবে ভোলামাছ খেতে বেশ সুস্বাদু।

স্বাদের পাশাপাশি এই মাছের চাহিদা ও দাম চড়া হওয়ার মূল কারণ হলো এ মাছের ফুলকা ভারতসহ বিভিন্ন দেশে রফতানি হয়। গ্রেড অনুযায়ী প্রতি কেজি ফুলকার মূল্য ২৫-৩০ হাজার টাকা। এ ফুলকা দিয়ে প্রসাধনী ও মূল্যবান ওষুধ তৈরি হয়।

এদিকে এত টাকা একত্রে পেয়ে মৎস্যজীবী রফিকুল ইসলামের পরিবারে বইছে আনন্দের জোয়ার।

আকরামুল ইসলাম/এসএমএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]