প্রধানমন্ত্রীর উপহার, ক্যানালের পাশের কুঁড়েঘর থেকে পাকাঘরে তারা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ঝিনাইদহ
প্রকাশিত: ০২:৪০ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২১

ঝিনাইদহে মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া পাকা ঘর ও জমি পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠেছেন হতদরিদ্র পরিবারের মানুষগুলো।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ উপলক্ষে ঝিনাইদহ জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ঘর বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এসময় সংসদ সদস্য আব্দুল হাই, সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী, সংসদ সদস্য খালেদা খানম, জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, হতদরিদ্র মানুষসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা শেষে ২৪৯টি দরিদ্র পরিবারের হাতে ঘর ও সেই ঘরের দুই শতাংশ জমির দলিল তুলে দেয়া হয়।

jagonews24

এসময় নতুন ঘর পেয়ে নিজের আনন্দের কথা জানান সদর উপজেলার কয়েরগাছী গ্রামের শামসু শেখ বলেন, দুই সন্তান আমাদের খেতে-পরতে দেয় না। অন্যের জায়গা ঝুপড়ি ঘর বানিয়ে থাকতাম। ঝড়-বৃষ্টিতে খুবই কষ্ট করেছি সেই সঙ্গে সাপের ভয়ও ছিলো।

তাই এই বয়সে এসে দুই শতাংশ জমি ও একটি পাকা বাড়ির মালিক হতে পেরে খুবই আনন্দিত। কখনো স্বপ্নেও ভাবেনি আমার পাকা ঘর হবে জমি হবে। ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রীকে এই উপহার দেওয়ার জন্য।

ঘর ও জমি পাওয়া শামসুন্নাহার ও হবা বেগম জানান, আগে ক্যানালের পাশে একটি খাসজমিতে কুঁড়েঘর তুলে বসবাস করতাম। সবসময় ভয় আর আতঙ্কের মধ্যে বসবাস করে এসেছি। একটু ঝড় বৃষ্টি হলেই উড়ে যেত ঘরের ছাউনি। পাকা ঘরে ঘুমাতে পারবো স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জমিসহ আমাকে পাকা ঘর দিয়েছেন এতে আমি অনেক খুশি।

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ/এসএমএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]