ছাত্রকে নির্যাতনের জেরে মাদরাসা শিক্ষককে এলাকাবাসীর ধাওয়া

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফেনী
প্রকাশিত: ০৩:০১ এএম, ০৭ মার্চ ২০২১
শিক্ষক ইসমাঈলের মারধরে জখম শিক্ষার্থী

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার কুঠিরহাট দারুল উলুম মাদ্রাসায় এক ছাত্রকে (১২) পিটিয়ে আহত করার জেরে ইসমাইল প্রকাশ নামে এক মাদরাসা শিক্ষককে ধাওয়া দিয়েছে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার (৬ মার্চ) রাতে ইসমাঈল হোসেনকে বাজারে দেখতে পেয়ে ধাওয়া শুরু করে এলাকাবাসী ও কয়েকজন অভিভাবক। পিটুনি এড়াতে তিনি একটি দোকানে আশ্রয় নেন। পরে সোনাগাজী থানা পুলিশকে বিষয়টি জানালে কৌশলে পালিয়ে যান অভিযুক্ত শিক্ষক।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার বিকেলে পড়ায় অমনোযোগী হওয়ার অজুহাতে এক শিক্ষার্থীকে বেত দিয়ে বেদম মারধর করেন ইসমাইল। খবর পেয়ে রাতেই ওই শিক্ষার্থীর মামা সুমন ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ওমর ফারুক মাদরাসায় থেকে তাকে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক অভিভাবক জানান, এর আগেও ইসমাঈলের অমানুষিক মারধর সহ্য করতে না পেরে অনেক ছাত্র মাদরাসা ছেড়ে পালিয়েছে। এর জেরে পড়াশোনায় ভীতি সৃষ্টি হওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীকে পরে আর পড়াশোনায় ফেরানো যায়নি।

স্থানীয় মজলিশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ হাসেম জানান, এর আগেও ইসমাঈলের মারধরের ঘটনায় কয়েকবার সালিশ হয়েছে। এ বিষয়ে মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা জুবায়ের হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। রোববার জরুরি সভা ডাকা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এসএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]