পাওনা টাকা চাওয়ায় মেরে বাবার হাত ভেঙে দিল ছেলে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নেত্রকোনা
প্রকাশিত: ০৬:২৬ পিএম, ১৩ এপ্রিল ২০২১

নেত্রকোনা সদরে বাবাকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে ছেলের বিরুদ্ধে। সন্তানরা ভরণপোষণ না দেয়ায় ভিক্ষা করে সংসার চালান ওই বৃদ্ধ।

সোমবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় পাওনা ৫০ হাজার টাকা চাইতে গিয়ে ছেলের মারধরের শিকার হন তিনি।

আহত বৃদ্ধের নাম বাহাজ উদ্দিন (৭০)। তিনি সদর উপজেলার দক্ষিণ বিশিউড়া ইউনিয়নের দুগিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাড়ির জায়গা নিয়ে পারিবারিক কলহের জের ধরে ওই বৃদ্ধের ছেলে কাজল মিয়া বাবাকে পিটিয়ে আহত করেন। এসময় ওই বৃদ্ধের একটি হাত ভেঙে যায়। পরে তাকে ইউনিয়নের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।

বৃদ্ধ বাহাজ উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, এর আগেও কয়েকবার ছেলে কাজলের হাতে তিনি মারধরের শিকার হয়েছেন। কাজলের সৎমা আছিয়া বেগমও (৪৫) তার ছেলের মারধরের শিকার হন। এতে তার সৎমায়ের দাঁত ভেঙে যায় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

বৃদ্ধ বাহাজ উদ্দিনের তিন ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

বৃদ্ধ বাহাজ উদ্দিন বলেন, ‘আমি কাজলের কাছে ৫০ হাজার টাকা পাই। টাকা চাইলেই সে মারধর করে। আমি ভিক্ষা করে টাকা জমিয়ে তাকে দিয়েছি। এর আগেও কয়েকবার কাজল আমাকে মারধর করেছে। সোমবার সন্ধ্যার পর আমাকে মারধর করে। সে আমাকে মেরে হাত ভেঙে দিয়েছে।’

জানতে চাইলে অভিযুক্ত কাজলের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

নেত্রকোনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে এখনও কোনো তথ্য পাইনি। থানায় লিখিত অভিযোগ ও করা হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এইচ এম কামাল/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]