চেয়ারম্যান পলাতক, ইউনিয়ন পরিষদে তালা!

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৯:৪১ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে হত্যা মামলার আসামি হয়ে পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম পলাতক থাকায় সেবা বঞ্চিত হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। দীর্ঘদিন ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স তালাবন্ধ থাকায় প্রতিদিনই প্রয়োজনীয় কাজ শেষ নাকরে ফিরে যাচ্ছেন মানুষ।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) সরেজমিনে দেখা যায়, পরিষদের গেটে তালা ঝুলানো। ভেতরে ভবনেও তালা দেয়া দেখে ফিরে যান সেবা নিতে আসা স্থানীয়রা। দুপুরের দিকে রমজান মিয়া নামে এক ব্যক্তি ইউনিয়ন পরিষদের গেটে তালাবন্ধ দেখে ফিরে যাচ্ছিলেন। তিনি ওয়ারিশ সনদের জন্য এসেছিলেন। কিন্তু ইউনিয়ন পরিষদ তালাবন্ধ থাকায় ফিরে যাচ্ছিলেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পাশের দোকানী জানান, সোমবার (১৯ এপ্রিল) ইউনিয়ন পরিষদের তালাই খোলা হয়নি। লোকজন এসে ফিরে যাচ্ছেন। কয়েকদিন যাবত পরিষদের লোকজন মাঝে-মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদ খুললেও কিছু সময় থেকে চলে যান।

স্থানীয়রা জানান, কিছুদিন আগে পাকশিমুল গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় দেলোয়ার হোসেন নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় করা মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে এই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামকে।

এই বিষয়ে জানতে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের মুঠোফোনে কল দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

পরে পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আবদুস কুদ্দুস জানান, তার স্ত্রী জেলা শহরে একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন। সেখানে সিজারে সন্তান জন্ম নিয়েছেন। তিনি স্ত্রীকে দেখতে শহরে হাসপাতালে রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স বন্ধ থাকার কথা নয়। একজন গ্রাম পুলিশ পরিষদ অফিসে ডিউটিতে থাকার কথা। ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা বিদেশে চলে গেছেন। নতুন একজন উদ্যোক্তা নিয়োগের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুল হক মৃদুল বলেন, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া এসময় ইউনিয়ন পরিষদ বন্ধ থাকবে। তবে সামনে একটি যোগাযোগ করার নম্বর থাকার কথার। আমি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

আবুল হাসনাত মো. রাফি/আরএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]