মান্দায় কৃষি প্রণোদনার সার ও বীজ উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নওগাঁ
প্রকাশিত: ০৩:২৬ এএম, ২৩ এপ্রিল ২০২১

নওগাঁর মান্দায় একটি বাড়িতে মজুত করে রাখা কৃষি প্রণোদনার বীজ ও সার উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলা কৃষি অফিস সংলগ্ন বড়পই গ্রামের এমদাদ মাস্টারের বাড়ি থেকে এগুলো উদ্ধার হয়। এ সময় বাড়ির কাউকে পাওয়া যায়নি।

কৃষি অফিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২০ এপ্রিল উপজেলা পরিষদ হলরুমে ২০২০-২১ অর্থবছরে আউশ প্রণোদনার বীজ বিতরণের উদ্বোধন করা হয়। এছাড়া বুধবার (২১ এপ্রিল) কৃষকদের মাঝে প্রণোদনা দেয়া হয়। উপজেলার মান্দা, পরানপুর, প্রসাদপুর, নুরুল্লাবাদ, ভারশোঁ, কশব, তেঁতুলিয়া ও গণেশপুর ইউনিয়নের ৮৮০ জন কৃষকদের মাঝে এসব প্রণোদনা দেয়া হয়।

jagonews24

বড়পই গ্রামের এমদাদ মাস্টারের বাড়িটি কৃষি অফিস থেকে প্রায় ২০০ ফুট দূরত্বে। উদ্ধারকৃত মালামালের মধ্যে পটাশ ২১ বস্তা (৫০ কেজি ওজন), ডিএপি ৪৮ বস্তা (৫০ কেজি ওজন), ধান বীজ ৬৬ বস্তা (১০ কেজি ওজন) এবং খোলা বীজ ৩ বস্তা।

অভিযোগ উঠেছে, কৃষি অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজশে নামে-বেনামে কৃষি কার্ড দিয়ে কৃষি অফিস থেকে প্রণোদনাগুলো উত্তোলন করা হয়েছে। খোলা বাজারে বেশি দামে বিক্রি করার অপচেষ্টা করা হচ্ছিল। এর আগেও প্রণোদনার বীজ ও সার গোপনে মজুত করা হলেও, পরে প্রশাসন জানতে পেরে উদ্ধার করে।

jagonews24

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়লা শারমিন বলেন, কৃষি কার্ডধারী উপকারভোগী কৃষকদের মাঝে প্রণোদনাগুলো বিতরণ করা হয়েছে। বিষয়টি জানার পর ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় সেগুলো ২০২০-২১ অর্থবছরে আউশ প্রণোদনার বীজ ও সার। তবে সেখানে কীভাবে মজুত করে রাখা হয়েছে সেগুলো প্রশাসন তদন্ত করে দেখবে।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, গোপন সংবাদে জানতে পারি, সেখানে একটি বাড়িতে প্রণোদনার বীজ ও সার মজুত আছে। এরপর পুলিশ পাঠিয়ে মালামাল জব্দ করা। তবে কৃষি অফিস থেকে অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আব্বাস আলী/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]