লাল জামা-চুড়ি-ফিতার আবদার পূরণ না হওয়ায় আত্মহত্যা শিশুর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৭:৪৪ পিএম, ০৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০৭:৪৮ পিএম, ০৬ মে ২০২১
প্রতীকী ছবি

হাতে লাল চুড়ি, চুলে লাল ফিতা, ঠোঁটে লাল লিপিস্টিক আর লাল রঙের জামা পরে ঈদের দিন বান্ধবীদের সঙ্গে ঘুরবে। মায়ের সঙ্গে নানা বাড়ি যাবে। এমনই শখ ছিল আট বছর বয়সী বীথি সুলতানার। কিন্তু দিনমজুর বাবার পক্ষে তার চাহিদা পূরণ করার সামর্থ্য ছিল না। এজন্য শখ পূরণে বাবা-মার পক্ষ থেকে কোনো সাড়া মিলছিল না। তাই অভিমান করে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় সে। গলায় ফাঁস লাগিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) দুপুর ১টার দিকে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার বাগাট ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বীথি বাগাট ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া গ্রামের দিনমজুর সমির শেখের মেয়ে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, আট বছরের শিশুকন্যা বীথি কয়েকদিন ধরে বায়না ধরেছিল ঈদের দিনে পরার জন্য একটি লাল জামা, লাল ফিতা, লাল চুড়ি ও লাল লিপস্টিক কিনে দিতে হবে। তার বাবা মানুষের বাড়ি বাড়ি কামলার কাজ করেন আর মা স্থানীয় একটি জুট মিলের শ্রমিক। মা বলেছিলেন, বৃহস্পতিবার বেতন পেয়ে তাকে কিছু টাকা দেবেন। তবে সে পর্যন্ত সময় নেয় বীথি। অভিমানে সবার অজান্তে দুপুরের দিকে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

মধুখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রথীন্দ্রনাথ তরফদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক।

এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]