জয়পুরহাটে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট
প্রকাশিত: ০৬:১৩ এএম, ১৮ মে ২০২১ | আপডেট: ০৮:১২ এএম, ১৮ মে ২০২১
প্রতীকী ছবি

যৌতুকের দাবিতে জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার মহাইল-শান্তিনগর গ্রামে তোফেলা বেগম (২০) নামে এক গৃহবধূকে তার স্বামী সাইফুল ইসলাম ও শ্বশুর আলম মণ্ডল অমানবিক নির্যাতন চালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত দু’দিন ধরে নির্যাতনের খবর পেয়ে তোফেলার বাবা স্থানীয়দের সহায়তায় মেয়েকে উদ্ধার করে কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

সোমবার (১৭ মে) রাতে গৃহবধূর বাবা মোফাজ্জল হোসেন কালাই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ, ২০১৪ সালে মহাইল-শান্তিনগর গ্রামের আলম মণ্ডলের ছেলে সাইফুলের সঙ্গে পাশের উদয়পুর বাসিলা গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের মেয়ে তোফেলার বিয়ে হয়। বিয়ের কিছু দিন যেতে না যেতেই তার স্বামী যৌতুকের জন্য তোফেলাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতে শুরু করেন। বিয়ের সময় তোফেলার দরিদ্র বাবা জামাই সাইফুলকে যৌতুকের ২৫ হাজার টাকা পরিশোধ করেন।

তোফেলার দিনমজুর বাবা বলেন, ‘মেয়ের বিয়েতে যৌতুক দিয়েছি, তারপরও তারা আমার মেয়েকে মারধর করত। রোববার খবর পেয়ে সাইফুলের বাড়ি থেকে মেয়েকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়েছি। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

তোফেলার অভিযোগ করে বলেন, ‘সাইফুল জুয়া খেলে আর শ্বশুর নেশা করে। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলেই নির্যাতন করে। ঈদের পর দিন শনিবার আরও যৌতুকের টাকা দাবি করলে আমি অপারগতা জানাই বলে আমার স্বামী ও শ্বশুর আমাকে কিল, ঘুষি ও রডের শাবল দিয়ে মারতে থাকে, এক পর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। পরে জ্ঞান ফিরে দেখি আমি হাসপাতালে।

কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মালিক বলেন, ‘মেয়েটি চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে রয়েছেন। তার বাবা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

রাশেদুজ্জামান/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]