বাস উদ্ধারে গিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধাকে পুলিশের লাঠিপেটা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুড়িগ্রাম
প্রকাশিত: ০৯:২৬ এএম, ১০ জুন ২০২১

কুড়িগ্রামের উলিপুরের রাজারহাটে গত মঙ্গলবার (৮ জুন) হানিফ পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কায় দুইজন আহত হন। দুর্ঘটনার পর উপজেলার তেজার মোড় গাজীর দরগাহ্ এলাকায় বাসটি আটকে রাখেন স্থানীয়রা। বুধবার (৯ জুন) দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাসটি উদ্ধার করতে যান।

এসময় স্থানীয়দের ওপর লাঠিপেটা করে পুলিশ। এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম হবি (৬৮) আহত হন। পুলিশের লাঠিপেটায় আহত হয়েছেন স্থানীয় আরও দুইজন। তারা হলেন- আজাহার আলী (৬০) ও জাহিদ বাবু (১৭)।

এদিকে, বীর মুক্তিযোদ্ধাকে লাঠিপেটার ঘটনায় স্থানীয়রা ক্ষোভ জানিয়েছেন। আহত বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম হবি বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে ছিলাম। পুলিশ এসে বাঁশিতে ফু দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এতে আমি অচেতন হয়ে পড়ি।’

স্থানীয়রা জানান, গত ৮ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হানিফ পরিবহনের ঢাকাগামী একটি বাসের ধাক্কায় উপজেলার দলদলিয়া ইউনিয়নের আব্দুল হাদি পঞ্চায়েত পাড়ার বাসিন্দা মঞ্জু আলম (৪০) ও তার ছেলে রুহান (৭) আহত হন। তারা বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ কবির বলেন, ‘হানিফ পরিবহনের লোকজনের ওপর স্থানীয় জনতা যখন চড়াও হয়, তখন তাদেরকে সামলাতে গিয়ে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা না-কি পড়ে গিয়েছিলেন রাস্তায়। পরে আমরা তা জানতে পেরেছি।’

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর-এ- জান্নাত রুমি বলেন, ‘জনরোষ থামাতে গিয়ে তিনি আঘাত পেয়েছেন। বিষয়টি অনাকাঙ্ক্ষিত।’

মো. মাসুদ রানা/এএএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]