বাল্যবিয়ের গাড়ি ধরলেন মোবাইল কোর্ট, মুচলেকা দিয়ে বাড়ি ফিরলেন বর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ১০:১০ পিএম, ১৪ জুন ২০২১ | আপডেট: ১০:১৩ পিএম, ১৪ জুন ২০২১

লকডাউনের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে বিয়ে করতে যাওয়ার সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ধরা খেয়ে জরিমানা দিয়ে ফিরে গেলেন বরসহ সহযাত্রীরা। সাতক্ষীরা থেকে কালীগঞ্জ অভিমুখে যাওয়া বরসহ বরের আত্মীয়-স্বজনবাহী মাইক্রোবাসটি আটক করেন দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাছলিমা আক্তার।

সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার গাজীরহাট বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে এই ঘটনা ঘটে।

তারা বিয়ের উদ্দেশে কালীগঞ্জ উপজেলার চালতেবাড়িয়া গ্রামে কনের বাড়িতে যাচ্ছিলেন বলে জানালে তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তিন হাজার টাকা জরিমানাসহ মুচলেকা নিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে দেন ইউএনও। পাশাপাশি কনের বাড়িতেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দেবহাটা ইউএনও তাছলিমা আক্তার বলেন, লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিয়ে করতে যাচ্ছিলেন সদর উপজেলার বৈচনা এলাকার মহিদুল ইসলামের অপ্রাপ্ত বয়স্ক (বিয়ের জন্য) ছেলে আবু রায়হান (১৮)। কনের বাড়ি কালীগঞ্জের চালতেবাড়িয়া গ্রামে। পথে গাজীরহাট এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত চলাকালীন তাদেরকে বহনকারী মাইক্রোবাসটি আটক করা হয়। পরে জরিমানা ও মুচলেকা নিয়ে তাদেরকে পুনরায় বাড়িতে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশের আইন অনুয়ায়ী, বরের বয়স ২১ ও কনের বয়স ১৮ বছরের কম হলে তা বাল্যবিয়ে বলে গণ্য হবে।

আহসানুর রহমান রাজীব/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]