মেসেঞ্জারে ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর চ্যাটিং, শিক্ষকের বিরুদ্ধে জিডি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:৫৩ পিএম, ১৬ জুন ২০২১

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া এইচ টি ইমাম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইংরেজি শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর ফেসবুক মেসেঞ্জারে আপত্তিকর চ্যাটিং করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পরিবার ও শিক্ষার্থীর নিরাপত্তা চেয়ে উল্লাপাড়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

জিডি সূত্রে জানা গেছে, এইচ টি ইমাম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর ফেসবুক মেসেঞ্জারে দীর্ঘদিন ধরে নানা আপত্তিকর প্রস্তাব দিয়ে আসছেন স্কুলের ইংরেজি শিক্ষক আসাদুল ইসলাম। বিষয়টি অভিভাবককে জানায় ওই ছাত্রী। পরে ছাত্রীর অভিভাবক বিষয়টি লিখিতভাবে স্কুলের অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামকে জানান। এতে শিক্ষক আসাদুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে গত ৩ জুন সন্ধ্যায় ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে অভিযোগ প্রত্যাহার না করলে বড় রকমের ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেন।

এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে মঙ্গলবার (১৫ জুন) উল্লাপাড়া মডেল থানায় জিডি করে ছাত্রীর পরিবার। জিডি নম্বর ৬০৭।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর অভিভাবক বলেন, ‘শিক্ষকের এমন কাণ্ডে আমরা নিরাপত্তাহীনতা ও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে আছি। পরিবার ও মেয়ের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত শিক্ষক মো. আসাদুল ইসলাম বলেন, ‘আমি নেট কম বুঝি, আমার ফেসবুক আইডি কোনো এক দুষ্কৃতকারী হ্যাক করে এমন চ্যাট করেছে। অধ্যক্ষ আমাকে ১০ দিনের সময় দিয়ে শোকজ নোটিশ করেছেন। আমি নোটিশের জবাব দিতে ব্যস্ত আছি।’

এইচ টি ইমাম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর অভিভাবক শিক্ষক আসাদুল ইসলামের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগের সূত্র ধরে ওই শিক্ষককে ১০ দিনের সময় দিয়ে শোকজ নোটিশ করা হয়েছে। এখনো নোটিশের বেঁধে দেয়া সময় অতিবাহিত না হওয়ায় ব্যবস্থা নিতে পারছি না।’

ইউসুফ দেওয়ান রাজু/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]