লকডাউনে শিমুলিয়া-বাংলাবাজারে বন্ধ লঞ্চ, চলবে ফেরি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মুন্সিগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৭:১৬ পিএম, ২১ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৭:২২ পিএম, ২১ জুন ২০২১
ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় মঙ্গলবার (২২ জুন) থেকে মুন্সিগঞ্জ, মাদারীপুরসহ ঢাকার সাত জেলায় কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। লকডাউনের সময় পদ্মা নদীর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ থাকবে বলে ঘাট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে।

লকডাউনের আওতামুক্ত গাড়ি পারাপারে নদীতে ফেরি চলাচল সচল থাকবে।

নৌরুটের দুটি ঘাটের একটি মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের বাংলাবাজারে অবস্থিত। এ দুটি জেলাই লকডাউনের আওতায় রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়াঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) সাফায়েত আহমেদ জানান, নির্দেশনা অনুযায়ী মঙ্গলবার থেকে নৌরুটে ফেরি চলাচল সীমিত করা হবে। যেসব ফেরি সচল থাকবে সেগুলো দিয়ে শুধু কাঁচামাল, পণ্যবাহী গাড়ি ও জরুরি রোগীবাহী গাড়ি পার করা হবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে নৌরুটে ১৬টি ফেরি সচল রয়েছে। মঙ্গলবার থেকে নির্দেশনা অনুযায়ী এ সংখ্যা কমিয়ে দেয়া হবে।

লঞ্চ চলাচলের বিষয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিটিএ) শিমুলিয়াঘাটের বন্দর কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন জাগো নিউজকে জানান, বর্তমানে ৮৭টি লঞ্চ সচল আছে। মঙ্গলবার ভোর থেকে লঞ্চ চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। স্পিডবোট এর মধ্যেই বন্ধ রয়েছে।

এদিকে মুন্সিগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলায় গত এক মাসে করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৬৩ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ হাজার ৮৮৬ জন। সুস্থ হয়েছেন পাঁচ হাজার ৭৮৪ জন। মারা গেছেন ৭১ জন।

আরাফাত রায়হান সাকিব/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]