নজরকাড়া শিল্পকর্মে ফেনীর দেয়াল সাজাচ্ছে ‘রাঙাদেয়াল’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফেনী
প্রকাশিত: ১০:৪০ এএম, ২৫ জুন ২০২১

যেসব দেয়াল ছিল পোস্টারে ঢাকা, ব্যানারে ছাওয়া সেখানে এখন দেখা মিলছে নজরকাড়া সব শিল্পকর্ম। কোথাও ফুটে উঠেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবনের নানান ঘটনা, কোথাওবা দুরন্ত কৈশোর, আবার কোথাও ফিলিস্তিনের প্রতি সংহতির বহিঃপ্রকাশ। এভাবেই ফেনী শহরের বিভিন্ন ভবনের সীমানাপ্রাচীরকে রাঙিয়ে দিয়েছে ‘রাঙাদেয়াল’। এই দলটির কয়েকজন প্রগতিশীল তরুণ-তরুণী গত ছয় মাস ধরে শহরের দেয়ালে রাখছেন রুচিশীল শিল্পকর্মের ছাপ। আর তাদের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে শহরবাসী।

jagonews24

শহরের মিজান রোড থেকে মাস্টার পাড়া, কলেজ রোড, শহীদুল্লা কায়সার সড়ক, শহর পুলিশ ফাঁড়ি, শিল্পকলা একাডেমি, রেলওয়ে স্টেশনসহ বিভিন্ন এলাকার দেয়ালে দেখা যাচ্ছে এসব শিক্ষণীয় ও বিনোদনমূলক আলপনা।

jagonews24

মিজান রোডের পশ্চিম মাথায় সোনালী ব্যাংকের শ্যাওলা পড়া দেয়াল এখন আর দৃষ্টিকটু অবস্থায় নেই। তুলির আঁচড়ে সেখানে ফুটে উঠেছে নির্যাতিত নারীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মহানুভবতার কথা। কিছুদিন আগেও পোস্টার-ব্যানারে ঢাকা বিশ্রী দেয়ালটি এখন হঠাৎ দৃষ্টি কেড়ে নেয় পথিকের।

রাঙাদেয়ালের উদ্যোক্তা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী শান্ত আহমেদ।

jagonews24

তিনি বলেন, ‘করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় উঠতি বয়সীরা বিপথগামী হতে শুরু করেছে। সাধারণ মানুষের মাঝেও দিনদিন বিষণ্ণতা বেড়েই চলছে। এমতাবস্থায় সমবয়সী কয়েকজন মিলে আমরা ফেনী শহরের দেয়ালগুলো রাঙানোর উদ্যোগ নিই। এ কাজে আমাদের নিত্যসঙ্গী ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী আসিফ, ঢাকা আর্ট কলেজের ফারাবী তিশা, ফেনী সরকারী কলেজের অনিন্দ্য, পিয়াল ও অমি এবং ফেনী সিটি কলেজের শামীম।’

jagonews24

তিনি আরও বলেন, ‘মূলত পরিত্যক্ত, শ্যাওলা পড়া দেয়ালগুলো রাঙিয়ে শহরের সৌন্দর্য বাড়ানোর মাধ্যমে সর্বসাধারণকে শিক্ষা ও বিনোদন দেয়ার জন্যই আমরা এ উদ্যোগটি নিয়েছি। মাঝে কয়েকজন উপকরণ সহযোগী পাওয়ায় পেছনে ফিরতে হচ্ছে না।’

jagonews24

দলের অন্যতম সদস্য ফারাবী তিশা বলেন, ‘কাজটি করতে গিয়ে মানুষের ভালোবাসা, আন্তরিকতা ও সহযোগিতার মনোভাব আমাদেরকে উৎসাহী করে তুলছে। শুধু ফেনী নয়, রাঙা দেয়াল ছড়িয়ে পড়ুক সারা দেশে। দেশের সবগুলো নোংরা, শ্যাওলা পড়া ও পরিত্যক্ত দেয়াল ভরে উঠুক নান্দনিক শিল্পকর্মে। যে কর্ম মানুষকে সচেতন করবে; মানুষকে বিনোদন ও শিক্ষা দেবে।’

নুর উল্লাহ কায়সার/এসএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]