গাজীপুরে ধর্ষণ মামলায় কারাগারে কনস্টেবল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৯:২৭ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

গাজীপুরে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে মনিরুজ্জামান নামের এক কনস্টেবলকে (২৩) গ্রেফতারের পর রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেফতার কনস্টেবল মনিরুজ্জামান সিরাজগঞ্জের কাজিপুর থানার বিয়ারা চরপাড়া এলাকার বিল্লাল হোসেনের ছেলে। তিনি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে (এপিবিএন) উত্তরায় কর্মরত।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ওই পুলিশ সদস্যকে আটক করেন স্থানীয়রা। পরে তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে জিএমপি কোনাবাড়ী থানায় একটি মামলা করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তিন বছর আগে ওই নারীর সঙ্গে মনিরুজ্জামানের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মধ্যে ওই নারী কোনাবাড়ী থানার পেয়ারা বাগান এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে মায়ের সঙ্গে থাকা শুরু করেন এবং স্থানীয় পোশাক কারখানায় চাকরি নেন। গত ফেব্রুয়ারি মাসে বিয়ের প্রলোভনে এক আত্মীয়ের বাসায় নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন মনিরুজ্জামান। পরে বাসায় এসে ওই নারী মাকে সব খুলে বলেন এবং গাজীপুর আদালতে একটি মামলা করেন।

মামলার বিষয়টি জানতে পেরে বিভিন্ন সময় ফোনে ভুক্তভোগী ওই নারীকে প্রাণনাশের হুমকি দেন কনস্টেবল মনিরুজ্জামান। শনিবার রাতে মেয়ের বাসায় এসে ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে ভয়ভীতি দেখান। মামলা তুলে নিতে অস্বীকৃতি জানালে মনিরুজ্জামান আবার ধর্ষণ করেন। এ সময় নারীর চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে পুলিশ সদস্যকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। পরে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় কোনাবাড়ী পুলিশ। এ ঘটনায় রোববার সকালে ওই নারী বাদী হয়ে মনিরুজ্জামানের নামে আরও একটি মামলা করেন।

কোনাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাখাওয়াত ইমতিয়াজ বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত কনস্টেবলকে বিকেলে আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মো. আমিনুল ইসলাম/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]