লক্ষ্মীপুরে সাড়ে ৩ লাখ শিক্ষার্থী পাচ্ছে হেলথকার্ড

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লক্ষ্মীপুর
প্রকাশিত: ০৭:৩৯ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০২১

মুজিববর্ষ উপলক্ষে সঠিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে লক্ষ্মীপুরের সাড়ে তিন লাখ শিক্ষার্থীর মধ্যে স্কুল হেলথকার্ড বিতরণ করা হবে। সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে জেলার রামগতি উপজেলার চরবাদাম ইউনিয়নের দক্ষিণ পশ্চিম চরসীতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩০৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে হেলথকার্ড বিতরণের মাধ্যমে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোসাইন আকন্দ প্রধান অতিথি হিসেবে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

এসময় তিনি বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে স্কুলভিত্তিক স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম চালু রয়েছে। আমরাও শুরু করেছি। পড়ালেখার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মানসিক ও শারীরিকভাবে বেড়ে উঠতে এ সেবা ভূমিকা রাখবে।

রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল হাসনাত খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল গফ্ফার, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. নূর-এ-আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মেহের নিগার, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. আশফাকুর রহমান মামুন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াহেদ মুরাদ, লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি হোসাইন আহমদ হেলাল ও চর বাদাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন জসীম প্রমুখ।

jagonews24

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এ কার্যক্রমের আওতায় প্রতিবছর শিক্ষার্থীদের শারীরিক অবস্থা যাচাই করা হবে। তাদের পুষ্টি ও শারীরিক সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে হেলথকার্ডে লিপিবদ্ধ করা হবে। স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসকেরা কার্ডের রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যসেবা দিবেন। এ ব্যাপারে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে টিম গঠন করে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এর ফলে শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে ক্ষুদে ডাক্তার তৈরি হবে।

সূত্র আরও জানায়, প্রাথমিকভাবে শিক্ষার্থীরাই সহপাঠীদের উচ্চতা, দৃষ্টিশক্তি, ওজন মেপে তা হেলথকার্ডে লিপিবদ্ধ করবেন। এর মধ্যে শিক্ষার্থীদের উচ্চতা, ওজন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, পুষ্টিগত অবস্থা, শারীরিক সমস্যা, দৃষ্টি পরীক্ষা, রক্তশূন্যতা, পালস্ ও হার্টবিটসহ অন্যান্য বিষয় উল্লেখ থাকবে।

কাজল কায়েস/ইউএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]