সারাদেশে ট্রেন চললেও চালু হয়নি ছাতক স্টেশন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সুনামগঞ্জ
প্রকাশিত: ১১:৫০ এএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

‘কত দিন ধরে ট্রেনে চলাচল করি না, আগে বাবার সঙ্গে ট্রেন চড়ে সিলেটে গিয়ে কেনাকাটা করতাম, কতো মজা হতো। কিন্তু হঠাৎ করে করোনায় ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিলো। তবে টিভিতে দেখি সব জায়গায় আবারও ট্রেন চলছে শুধু আমাদের এখানে ট্রেন চলছে না।’

সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার রেললাইনের পাশে বসে কথাগুলো বলছিল আসলাম মিয়া (১২) নামের এক শিশু।

করোনায় দেড়বছর ধরে ছাতক-সিলেট রেলপথে বন্ধ আছে ট্রেন চলাচল। সারাদেশের সঙ্গে বর্তমানে সব রেলপথে ট্রেন চলাচল করলেও এখনো চালু হয়নি এ স্টেশন। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন ট্রেনে যাতায়াতকারী ছাতকবাসী। দ্রুত ট্রেন চালু করতে সরকার ও কর্তৃপক্ষের প্রতি দাবি জানান তারা।

jagonews24

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ব্রিটিশ আমল থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলায় ব্যবসা-বাণিজ্য চলে আসছে। ফলে উপজেলাটি দেশ-বিদেশে শিল্পনগরী হিসেবে পরিচিতি পায়। ব্যবসার প্রসারে ১৯৫৪ সালে ছাতক-সিলেটে ৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ রেলপথটি স্থাপিত হয় এবং ছাতক বাজার রেলস্টেশনের উদ্বোধন করেন তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের যোগাযোগ মন্ত্রী।

উদ্বোধনের পর থেকে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত যাত্রী সেবায় ট্রেন ছিল একনিষ্ঠ। ছাতকবাজার রেল স্টেশন থেকে প্রতিদিন চারটি ট্রেন সিলেটে যাতায়াত করতো। এছাড়া মালামাল পরিবহনের চারটি ট্রেনে সিমেন্ট, পাথর, চুনাপাথর, তেজপাতা ও কমলাসহ বিভিন্ন ধরনের কাঁচামাল কম খরচে পরিবহন করা হতো। কিন্তু করোনার কারণে সারাদেশের সঙ্গে এ রেলপথেও ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

সম্প্রতি সারাদেশে ট্রেন চলাচল চালু হলেও প্রাচীনতম ছাতক রেলপথে ট্রেন চালু করা হচ্ছে না। যাত্রীরাও ট্রেনের সেবা পাচ্ছে না। ট্রেন পরিবহনে স্বল্প ভাড়ার পরিবর্তে এখন সড়কপথে অধিক ভাড়া গুনতে হচ্ছে এ অঞ্চলের বাসিন্দাদের।

jagonews24

স্থানীয় বাসিন্দা সামছুল ইসলাম বলেন, আমি প্রতিদিন সিলেট শহরে রিকশা চালিয়ে দিন শেষে ট্রেনে ছাতক আসতাম। অল্প ভাড়ায় নিরাপদে যাতায়াত করা যেতো। কিন্তু গত দেড় বছর ধরে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় বেশি টাকা দিয়ে সিলেট থেকে ছাতকে আসতে হচ্ছে।

ছাতক রেল স্টেশনের পাশে থাকা ব্যবসায়ী শহিদুল আলম বলেন, দেড় বছর ধরে করোনার জন্য ছাতকে ট্রেন আসে না। ফলে পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে আছি। কারণ ট্রেন আসলে আমার দোকানে বিকিকিনি হয়। এখন ট্রেন আসে না বিক্রিও নাই। মাস শেষে দোকান ভাড়াটা দিতেও হিমশিম খাচ্ছি।

আইসক্রিম বিক্রেতা দিলদার আলম বলেন, আমরা খুব গরীব মানুষ। স্টেশনের পাশে আইসক্রিম বিক্রি করে সংসার চলে। কিন্তু দেড় বছর ধরে ট্রেন বন্ধ এখন চালু হয়নি। এখন আমরা কীভাবে সংসার চালাবো সেটা নিয়েই দুশ্চিন্তায় পড়েছি। সরকারের কাছে জোর দাবি জানাই দ্রুত যাতে ছাতক-সিলেট পথে ট্রেন চালু করে দেয়।

jagonews24

স্থানীয় বাসিন্দা আলমগীর কবির বলেন, দেড় বছর ধরে ট্রেন বন্ধ, অনেক জায়গায় দেখেছি ট্রেন চলাচলের রেল পথ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ছাতক আর কবে ট্রেন আসবে তা কেউ নির্দিষ্ট করে বলতে পারছে না। এদিকে স্টেশনের দায়িত্বে যারা আছে তারাও নির্দিষ্ট করে কিছুই বলছে না।

ছাতক রেল স্টেশনের দায়িত্বে থাকা কেয়ারটেকার মঞ্জু মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, করোনায় ছাতকে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়েছিল। ট্রেন চলাচলের জন্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। এখন কর্তৃপক্ষের ইচ্ছে। আমি সঠিক বলতে পারবো না ট্রেন কবে চলবে।

লিপসন আহমেদ/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]