বিনা নোটিশে ২২ পরিবারকে উচ্ছেদের অভিযোগ বনবিভাগের বিরুদ্ধে

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি কলাপাড়া (পটুয়াখালী)
প্রকাশিত: ০৫:০৮ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০২১

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ২২ জেলে পরিবারকে বিনা নোটিশে উচ্ছেদ ও হামলার অভিযোগ উঠেছে বনবিভাগের বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার ধুলাস্বার ইউনিয়নের চর গঙ্গামতি এলাকায় উচ্ছেদ করা বসতভিটাতেই মানববন্ধন করেছেন ভুক্তভোগীরা।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা বলেন, আমরা সাগরপাড়ে অসহায় ২২ জেলে পরিবার প্রায় ৪০ বছর ধরে বসবাস করে আসছি। এখানে থেকে সমুদ্রে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করছি। গত ২১ সেপ্টেম্বর কোনো নোটিশ ছাড়াই গঙ্গামতি রেঞ্জ কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে আমাদের বসতবাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করা হয়। এসময় বন কর্মকর্তারা মালামাল লুট করে নিয়ে যান।

জেলেরা আরও দাবি করেন, বনবিভাগের কর্মকর্তারা একটি টিউবওয়েল খুলে নিয়ে যান। হামলার প্রতিবাদ জানালে মামলা ও হামলার ভয় দেখান।

jagonews24

মানববন্ধনে পুনর্বাসন না হওয়া পর্যন্ত উচ্ছেদ না করার অনুরোধ জানান ভুক্তভোগী জেলে পরিবারগুলো।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী সেলিম বলেন, আমরা প্রতি পরিবার বিট কর্মকর্তাদের দুই হাজার করে টাকা ও মাছ দিয়ে আসছি। কয়েকদিন পর পর তাদের কাছে মাছ পাঠাই। তারপরও তারা আমাদের ঘরগুলো ভেঙে দিয়েছেন।

jagonews24

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী জেলেরা পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক ও কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে বিচার চেয়ে লিখিত আবেদন জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে বনবিভাগের গঙ্গামতি রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেন বলেন, এরা ২০-২৫ বছর ধরে অবৈধভাবে বনের মধ্যে অস্থায়ী ঘরবাড়ি তুলে বসবাস করছিলেন। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে।

jagonews24

পূর্ব নোটিশ ছাড়া উচ্ছেদ আইন বহির্ভূত কি না এমন প্রশ্নের জবাবে রেঞ্জ কর্মকর্তা বলেন, উচ্ছেদ করতে কোনো নোটিশের দরকার হয় না। টাকা ও মাছ নেওয়ার অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী উপকূলীয় বনবিভাগের সহকারী বনসংরক্ষক মো. তারিকুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ওই পরিবারগুলো দীর্ঘদিন বনবিভাগের সংরক্ষিত এলাকা দখল করে বসবাস করছিল। সেগুলোর দখল আমরা প্রতিরোধ করেছি। আমাদের পূর্ব নোটিশ প্রয়োজন হয় না। তাদের মালামাল আমরা লুট করে নেইনি। তবে কিছু মালামাল জব্দ করেছি। টাকা নেওয়ার ব্যাপারে যদি কেউ লিখিত অভিযোগ করেন তাহলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]