চেয়ার দিয়ে জুনিয়রের মাথা ফাটালেন সিনিয়র অফিসার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ০৯:৫৭ এএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের (পল্লি সঞ্চয় ব্যাংক) শরীয়তপুর সদর উপজেলার জুনিয়র অফিসারকে লোহার চেয়ার দিয়ে আঘাত করে মাথা ফটানোর অভিযোগ উঠেছে অফিসার (সাধারণ) ফরিদ উদ্দিন আহাম্মদের বিরুদ্ধে।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প অফিসে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে।

আহত জুনিয়র অফিসার ইলিয়াস খন্দকার (৩০) বর্তমানে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের কেবিনে চিকিৎসাধীন।

ইলিয়াস বলেন, ‘সোমবার সন্ধ্যায় ফরিদ উদ্দিন আহাম্মদ তার কক্ষে সুপারভাইজার সফিক, সিও মহিদুল ও আমাকে নিয়ে মিটিংয়ে বসেন। এক পর্যায়ে তিনি আমাকে বলেন, যারা মাঠকর্মী আছেন তারা এলাকার সদস্যের ঋণ বিতরণ করলে, প্রতি সদস্য যেন আমাকে এক হাজার টাকা করে দেয়। এ কথাটা আপনি মাঠকর্মীদের বলে দিয়েন। তখন আমি বলি, ঘুষের টাকার কথা আমি বলতে পারবো না। আমি ঘুষ খাই না, বলতেও পারবো না। এ কথা বলার সঙ্গে সঙ্গে তিনি রুমে থাকা একটি লোহার চেয়ার দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করেন। আমি অজ্ঞান হয়ে যাই। জ্ঞান ফিরলে দেখি সদর হাসপাতালে আছি। তিনি আমার মাথা ফাটিয়েছেন। আমি তার বিরুদ্ধে মামলা করবো।’

jagonews24

এ বিষয়ে ফরিদ উদ্দিন আহাম্মদ বলেন, আমি ইলিয়াসকে টাকার বিষয়ে কিছু বলিনি। তবে তার সঙ্গে আমার ধস্তাধস্তি হয়েছে।

শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আক্তার হোসেন বলেন, আমি বিষয়টি শুনে হাসপাতালে ইলিয়াসকে দেখতে গিয়েছিলাম। ইলিয়াস আমাকে বিষয়টি মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মনদীপ ঘরাই বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক। এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। ঘটনার সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মো. ছগির হোসেন/ইউএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]