ভোলায় চুল কাটার বিজ্ঞপ্তিতে তোলপাড়

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ভোলা
প্রকাশিত: ০৭:৩০ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২১

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার জাহানপুর ইউনিয়নে চুল কাটা সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে সুন্নতি কাটিং, ডিফেন্স বা আর্মি কাটিং ছাড়া চুলে অন্য কোনো কাটিং দিলে সেলুন মালিক ও কারিগরদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এতে ১৪ নম্বর জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের সই রয়েছে।

সেলুন দোকান, মালিক ও কারিগরদের উদ্দেশ্যে ইউপি চেয়ারম্যান মো. নাজিম উদ্দিন হাওলাদারের সিল ও সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সুন্নতি কাটিং, ডিফেন্স/আর্মি’ কাটিং বাদে অন্য কোনো কাটিং দেওয়া হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) সকাল থেকে বিজ্ঞপ্তিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এতে স্থানীয়দের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।

এদিকে বিজ্ঞপ্তির প্রতিবাদ করায় এক কিশোরকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে তুষারের বিরুদ্ধে।

তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান মো. নাজিম উদ্দিন হাওলাদার। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, এমন কোনো বিজ্ঞপ্তি তিনি কাউকে কোথাও লাগাতে বলেননি। এটা তার বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষদের রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। তার ছেলেও কাউকে মারধর করেনি।

স্থানীয় এক কিশোরের সঙ্গে অন্য একটি বিষয় নিয়ে বাগবিতণ্ডা হয়েছে বলে স্বীকার করেন চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, আমি জানতে পেরে বিষয়টি মীমাংসা করে দেই।

জানতে চাইলে চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আল নোমান জাগো নিউজকে বলেন, ওই ইউপি চেয়ারম্যান বিষয়টি তাকে দুপুরের দিকে ফোনে জানিয়েছেন। তবে বিষয়টি তদন্ত করা হবে। তদন্তে ইউপি চেয়ারম্যানের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জুয়েল সাহা বিকাশ/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]