বেতনের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৯:৪৬ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২১

বকেয়া বেতনের দাবিতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন পোশাক কারখানার শ্রমিকরা।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) বিকেল থেকে তারা বিক্ষোভ শুরু করেন। এ সময় তারা বেশ কয়েকটি গাড়িও ভাঙচুর করেন। সন্ধ্যায় পুলিশ টিয়ারশেল ছুড়ে আন্দোলনরতদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শ্রমিকদের বরাত দিয়ে শিল্প পুলিশ জানায়, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সদর থানাধীন দক্ষিণ সালনা এলাকায় শ্যামলী গার্মেন্টসে প্রায় আড়াই হাজার শ্রমিক-কর্মচারী আছেন। কারখানার শ্রমিকদের এক মাসের (সেপ্টেম্বর) এবং কর্মচারীদের পাঁচ মাসের বেতন বকেয়া। কর্তৃপক্ষ একাধিকবার আশ্বাস দিয়ে তারিখ নির্ধারণ করলেও তাদের পাওনাদি পরিশোধ করেনি।

jagonews24

সর্বশেষ সোমবার ছিল শ্রমিক-কর্মচারীদের গত সেপ্টেম্বর মাসের বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধের নির্ধারিত তারিখ। কিন্তু কারখানা কর্তৃপক্ষ এদিন শ্রমিকদের পাওনাদি না দিয়ে পরদিন বুধবার পরিশোধের আশ্বাস দেয়।

বকেয়া বেতন না পেয়ে একপর্যায়ে বিকেল ৩টার দিকে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা সেপ্টেম্বর মাসের বকেয়াসহ চলতি মাসের বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে পার্শ্ববর্তী ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ওপর অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। এতে মহাসড়কের উভয় দিকে যানবাহন আটকা পড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

jagonews24

গাজীপুর শিল্প পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আব্দুল মোনায়েম জাগো নিউজকে বলেন, আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের জন্য কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। পুলিশ সদস্যরা অবরোধকারী শ্রমিকদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর্যন্ত তারা সড়ক অবরোধ করে রাখে। এ সময় তারা ৩০-৪০টি গাড়ির কাচ ভাঙচুর করে। তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়লে পুলিশের কয়েক সদস্য আহত হয়। একপর্যায়ে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ছুড়ে আন্দোলনরতদের ছত্রভঙ্গ করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

মো. আমিনুল ইসলাম/এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]