লাল পতাকা হাতে দৌড়াদৌড়ি করেও দুর্ঘটনা থামাতে পারলেন না গেটকিপার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৩:৩২ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০২১

ঢাকা-পাবনা মহাসড়কের মহেন্দ্রপুর রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ট্রাক ও ট্রেন দুটিই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পাবনা-রাজশাহী রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে বদলি ইঞ্জিন আনার পর প্রায় পাঁচ ঘণ্টা পর সকাল সাড়ে ১০টায় ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্টেশন সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা-পাবনা মহাসড়কের মহেন্দ্রপুর রেলক্রসিংয়ে একটি ট্রাক সড়ক বিভাজকের ওপর উঠে যায়। চালক চেষ্টা করেও ট্রাকটি নামাতে পারেননি। এসময় পাবনার ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢালারচরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা ট্রেনটি ওই ট্রাককে ধাক্কায় দেয়। এসময় গেটকিপার মোকছেদ পাবনার স্টেশনমাস্টার মোস্তফা আলী রেজাকে ফোন করে বিষয়টি জানানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তার সঙ্গে মোবাইলে সংযোগ পেতে বিলম্ব হয়। এরই মধ্যে ট্রেন পাবনা স্টেশন ছেড়ে চলে আসে। এসময় গেটকিপার মোকছেদ লাল পতাকা হাতে নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করে রেল থামানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ততক্ষণে ট্রেনের চালক ট্রেনটি থামাতে পারেননি। ফলে সংঘর্ষ হয়।

স্টেশনমাস্টার মোস্তফা আলী রেজা বলেন, ট্রেন স্টেশন ছাড়ার পর তিনি গেটকিপারের ফোন পান। তবে স্টেশন থেকে দুর্ঘটনাস্থল খুব কাছে হওয়ায় ততক্ষণে আর চালককে মেসেজ দেওয়া সম্ভব হয়নি। চালকও ট্রেনটি থামাতে পারেননি। তখনই ট্রাক ও ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। এতে ট্রাকটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

খবর পেয়ে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। পরে ঈশ্বরদী থেকে বদলি ইঞ্জিন নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনার পাঁচ ঘণ্টা পর সকাল সাড়ে ১০টায় আবার ট্রেন চলাচল শুরু হয় বলে তিনি জানান।

প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় স্কুলশিক্ষক রফিকুল আলম রঞ্জু বলেন, ঘটনার পর রাস্তার দুই পাশে কয়েকশ যানবাহন আটকা পড়ে যানজট সৃষ্টি হয়।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ট্রেনটি ছেড়ে যাওয়ার পর যানজট কেটে গেছে। দুর্ঘটনাকবলিত ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়েছে

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শাহীদুল ইসলাম বলেন, ট্রেন দুর্ঘটনার পর তারা বিকল্প ইঞ্জিন পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। এখন রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক রয়েছে বলে তিনি জানান।

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]