ভুয়া রসিদে ব্যাংক হিসাবে ১০ লাখ টাকা নেওয়ার চেষ্টা, প্রতারক ধরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৯:৪১ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাংকের টাকা জমার রশিদে ভুয়া সিল মেরে প্রতারণার অভিযোগে রাহুল (৩০) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে জমা ও ট্রান্সফার সিল জব্দ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তাকে আটক করা হয়। আটক রাহুল কাজিপাড়ার প্রমানন্দ কর্মকারের ছেলে। তিনি এনআরবিসি ব্যাংকের সাবেক ক্যাশ কর্মকর্তা ছিলেন।

আল আরাফাহ ইসলামি ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের ডেস্ক কর্মকর্তা শরিফুল হক বলেন, বিকেলে গাজীপুর জেলার কাপাসিয়ার একটি এজেন্ট থেকে আমাকে কল দেওয়া হয়। বলা হয়, আল আরাফাহ ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখায় দুটি ভাউচারের মাধ্যমে ১০ লাখ টাকা কাপাসিয়ায় জমা দেওয়া হয়েছে। একটি রশিদে এক লাখ ও আরেকটি রশিদে ৯ লাখ টাকা জমা দেওয়া হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে টাকা জমা দেওয়ার দুটি রশিদ তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু আমি কম্পিউটারে দেখি এমন কোনো টাকা জমা দেওয়া হয়নি।

শরিফুল হক আরও বলেন, পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে কাপাসিয়ায় পাঠানো জমার রশিদগুলো পাঠাতে বলি। কাপাসিয়া থেকে জমার রশিদগুলো পাঠালে, তা দেখে সন্দেহ হয়। পরে কাপাসিয়ার ওই এজেন্টকে বলি টাকা জমা দেওয়া ব্যক্তিকে রশিদগুলো নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখায় আসতে। সন্ধ্যার দিকে রাহুল নামের এক যুবক মসজিদ রোডে আল আরাফাহ ইসলামি ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখায় জমার রশিদ নিয়ে হাজির হয়ে টাকা না ঢুকার কারণ জিজ্ঞেস করেন। আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখি তার জমার রশিদে সিল গুলো ভুয়া। তাকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে জমার রশিদে ভুয়া সিল তৈরি করে ছাপ দেওয়ার কথা স্বীকার করেন।

আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার ব্যবস্থাপক আব্দুর রহমান ভূইয়া বলেন, রাহুল টাকা জমা না দিয়েই দুপুরে ব্যাংকে এসে হিসাব নম্বরে টাকা না ঢুকার কারণ জানতে চান। তিনি যে জমা রশিদটি দেখিয়েছেন, সেটিতে দেওয়া সিলটি নকল। রাহুল নিজেই সিল বানিয়েছেন। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ব্যাংক কর্তৃপক্ষ লিখিত অভিযোগ দেবে। অভিযোগের আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আবুল হাসনাত মো. রাফি/এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]