‘প্রিসাইডিংয়ের বাপ আমি, এখানে ওপেন নৌকায় ভোট হবে’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ১১:৫৬ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এরই মাঝে উপজেলার লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. মুজিবুর রহমান সওদাগরের বিরুদ্ধে প্রিসাইডিং অফিসারকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সকালে ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পর লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের হাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে আসেন আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. মুজিবুর রহমান সওদাগর। কেন্দ্রে এসেই চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আবুল খায়েরকে চাপ দেন মুজিবুর রহমান। কিন্তু তিনি রাজি না হওয়ায় তাকে হুমকি দেন মুজিবুর রহমান। পাশাপাশি দফায় দফায় ভোটকেন্দ্র দখলের চেষ্টা করেন তার সমর্থকরা।

হাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আবুল খায়ের বলেন, ‘সকাল থেকে একাধিকবার আমাকে হুমকি দিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। তিনি এসে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য আমাকে চাপ প্রয়োগ করেন। আমি রাজি না হয়ে গোপন কক্ষে ভোট দেওয়ার কথা জানাই। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, প্রিসাইডিংয়ের বাপ আমি, এখানে ওপেন নৌকায় ভোট হবে। বিষয়টি আমি কেন্দ্রে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য ও স্ট্রাইকিং ফোর্সকে জানিয়েছি।’

তবে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মুজিবুর রহমান সওদাগর বলেন, আমি প্রিসাইডিং অফিসারকে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য চাপ দেইনি। তিনি মিথ্যা কথা বলছেন।

এ বিষয়ে লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্সের ইনচার্জ ও পুলিশ পরিদর্শক কাজী মাসুদ ইবনে আনোয়ার বলেন, প্রিসাইডিং অফিসারকে হুমকি দেওয়ার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে কেন্দ্রে আসি। কেন্দ্রে এসে অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো ব্যক্তিকে পাওয়া যায়নি। শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ চলছে।

আবুল হাসনাত/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]