জয়পুরহাট নারী-শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক প্রত্যাহার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট
প্রকাশিত: ০১:৩৯ এএম, ০২ ডিসেম্বর ২০২১

আইনজীবীদের তোপের মুখে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রুস্তম আলীকে প্রত্যাহার করে আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে। বুধবার (১ ডিসেম্বর) আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

এর আগে অর্থের বিনিময়ে জামিন দেওয়াসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে গত ১০ নভেম্বর (বুধবার) বিকেলে জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা শেষে আইনজীবীরা ২৯ নভেম্বর থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিচারক রুস্তম আলীকে প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত আদালত বর্জন করে আসছিলেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ করে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মো. রুস্তম আলীকে বর্তমান কর্মস্থল থেকে প্রত্যাহারপূর্বক আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হলো।

জয়পুরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার সরকার জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলীকে প্রত্যাহার করে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনের চিঠিটি আদালতে এসেছে।

জয়পুরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহনূর রহমান শাহীন বলেন, বিচারক মো. রুস্তম আলী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে যোগদানের পর থেকে অনিয়ম, দুর্নীতির সঙ্গে জড়ান। ভুক্তভোগীরা আইনজীবী সমিতিতে দরখাস্ত করেছেন। এরপর একটি সাধারণ সভায় আইনজীবীদের সিদ্ধান্তে ২৮ নভেম্বর বিচারককে আদালত প্রত্যাহারের আল্টিমেটাম দেওয়া হয়েছিল।

ওই সময়ের মধ্যে প্রত্যাহার না করায় আইনজীবীরা গত সোমবার (২৯ নভেম্বর) থেকে তার আদালত বর্জন শুরু করেছেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত ওই আদালত বর্জনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। বুধবার তাকে এখান থেকে প্রত্যাহার করে আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে। বিচারক এখান থেকে চলে যাওয়ার পর আইনজীবীরা আগের মতো ওই আদালতে যাবেন বলে জানান তিনি।

রাশেদুজ্জামান/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]