নৌকার মনোনয়ন পেয়ে বোমা ফাটিয়ে উল্লাস

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০৭:৫১ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মৌরাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন পাওয়ায় বোমা ফাটিয়ে আনন্দ উল্লাসের অভিযোগে উঠেছে। এ ঘটনায় তিনটি হাত বোমাসহ প্রার্থীর ছেলে ও তার কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ইউনিয়নের বাগদুলি বাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের সামনে ব্রিজ এলাকা থেকে তিনটি হাতবোমাসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. হাবিবুর রহমান প্রামাণিকের ছেলে শামীম প্রামাণিক (৩৬) ও চর হরিনাডাঙ্গা গ্রামের ইসলাম মণ্ডলের ছেলে মো. জালাল মণ্ডল (৩০)।

পাংশা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মিজানুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, নৌকার মনোনয়ন পাওয়ার সংবাদ পেয়ে ১৫-২০টি মোটরসাইকেল নিয়ে হাবিবুর রহমান প্রামানিকের ছেলেসহ অনেকে উচ্ছৃঙ্খলভাবে পুরো এলাকায় মহড়া দেন। পরে তারা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. শওকত আলী সরদারের বাড়ির পাশে বাগদুলি বাজার এলাকার একটি ব্রিজের ওপর রাস্তা আটকিয়ে আনন্দ উল্লাস করতে থাকেন। এ সময় তারা বোমা ফাটান। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে এলাকাবাসী।

রাজবাড়ী আরও বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ধাওয়া করে চেয়ারম্যানের ছেলেসহ দুজনকে তিনটি হাত বোমাসহ আটক করি। ঘটনাস্থল থেকে বোমা ফাটানোর অংশ বিশেষও পেয়েছি। বিস্ফোরক আইনে মামলা আটকদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. হাবিবুর রহমান প্রামাণিক জাগো নিউজকে বলেন, মনোনয়ন ঘোষণার সময় আমি ঢাকার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ছিলাম। মনোনয়নের খবর আমার এলাকায় জানার পর কর্ম-সমর্থকরা উল্লাস করে। এ সময় খুশিতে দু-একটা পটকা ফাটিয়েছে। প্রতিপক্ষের লোকজন পুলিশে খবর দিলে তারা আমার ছেলেসহ দুজনকে থানায় যায়। পরে শুনি বিস্ফারক আইনে মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠায়। আমার জনপ্রিয়তা দেখে প্রতিপক্ষের লোকজন আমার দুর্নাম রটাতে এ কাজটি করিয়েছে।

পঞ্চম ধাপে ৫ জানুয়ারি রাজবাড়ী পাংশা উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

রুবেলুর রহমান/এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]