শিবচরে টানা বৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০১:৪৪ এএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে দুদিনের টানা বৃষ্টির ফলে মাদারীপুরের শিবচরে রসুন, মসুর, কালোজিরাসহ নানা ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া পেঁয়াজের বীজতলাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

দুদিনের টানা বৃষ্টিতে কৃষি ক্ষেতে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। ফলে গম, মসুর, সরিষা, খেসারি, শাকসবজি, আলু ও পেঁয়াজ বীজতলার জমি প্রায় ডুবু ডুবু অবস্থা। জলাবদ্ধতা কয়েকদিন থাকলে মাঠের ফসল পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যাওয়ার শঙ্কা কৃষকদের।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, টানা বৃষ্টিতে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বহেরাতলা, দত্তপাড়া, বঁাশকান্দিসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের নিচু এলাকার ফসলি জমি পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে। উপজেলার শত শত বিঘা ফসলি জমি পানিতে তলিয়ে নষ্ট হওয়ার পথে। এতে কৃষকরা বিরাট ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে।

দত্তপাড়া ইউনিয়নের কৃষক আ. রহমান মোল্লা জানান, আমরা পেঁয়াজ রোপণে সার, বীজসহ অন্যান্য খরচবাবদ বিঘা প্রতি প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ করেছি। গত দুদিনের বৃষ্টিতে পেঁয়াজের জমি পুরোটাই তলিয়ে গেছে। জমিতে পানি জমে থাকায় প্রায় সব ফসলই নষ্ট হয়ে গেছে।

বহেরাতলা ইউনিয়নের কৃষক ইন্দ্রিস শেখ জানান, এনজিও থেকে টাকা ঋণ নিয়ে জমিতে রসুন বুনেছি। বৃষ্টিতে সব ফসল তলিয়ে গেছে। এখন এই ঋণের টাকা কিভাবে দেবো, আর সংসার কিভাবে চালাবো? আমাদের ব্যাপক ক্ষতি হয়ে গেলো।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা অনুপ রায় জানান, গত দুদিনের টানা বৃষ্টিতে মোট ৬৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। টানাবৃষ্টিতে উপজেলার বেশকিছু ফসলি জমি যেমন গম, মসুর, সরিষা, খেসারি, শাকসবজি, আলু ও পেঁয়াজ বীজতলার জমি ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আমরা সরেজমিনে গিয়ে পরিদর্শন করে একটি রিপোর্ট তৈরি করেছি। ৩-৪দিন পর বোঝা যাবে কেমন ক্ষতি হয়েছে।

এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]