স্বামী-স্ত্রী দুজনই হতে চান মেম্বার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৪:৪৪ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২২
মো. আবদুল লতিফ (বাঁয়ে) ও শাহীনা আক্তার লাকি (ডানে)

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে জমে উঠেছে স্বামী-স্ত্রীর ভোটের লড়াই। দুজনই হতে চান মেম্বার।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) প্রতীক পেয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন তারা।

স্থানীয়রা জানান, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার পদে মোরগ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন মো. আবদুল লতিফ (৬০) এবং ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী মেম্বার পদে সূর্যমুখী ফুল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন তার স্ত্রী শাহীনা আক্তার লাকি (৪৮)।

মো. আবদুল লতিফ সেলিম জাগো নিউজকে জানান, ২০০৩ সালে মেম্বার প্রার্থী হয়ে পরাজিত হই। আমার স্ত্রী শাহীনা আক্তার লাকি বিগত দুই বারের মহিলা মেম্বার। এলাকায় আমরা স্বামী-স্ত্রী দুজন মিলে জনগণকে সেবা দিয়ে আসছি। আশা করি ভোটাররা আমাদের দিকে ফিরে তাকাবেন।

শাহীনা আক্তার লাকি জানান, বিগত ১০ বছরে আমি এলাকার এমন কোনো বাড়ি নেই যেখানে সেবা দিতে যাইনি। বিশেষ করে নারী ভোটাররা আমাকে বেশি ভালোবাসেন। আমি বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতাসহ জনগণের সব পাওনা বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়েছি। নিশ্চয়ই তারা এবারও আমাকে সেভাবে মূল্যায়ন করবে।

ওই ওয়ার্ডের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও বর্তমান মেম্বার মো. আলা উদ্দিন বলেন, প্রত্যেকেরই প্রার্থী হওয়ার অধিকার রয়েছে। যার, যার ব্যক্তিত্ব ও জনসমর্থন নিয়ে ভোটারদের মন জয় করে ফলাফল ঘরে তুলতে হবে। ভোটাররাই আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি এ বিষয়ে চূড়ান্ত রায় দিবেন।

এ ওয়ার্ডে ছয়জন মেম্বার প্রার্থী রয়েছেন। এখানে চার হাজার ৩৫১ ভোটার রয়েছে। এবং ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী মেম্বার পদে তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ তিন ওয়ার্ডে ভোটার ১২ হাজারের বেশি।

ইকবাল হোসেন মজনু/আরএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]