রামগড়ে ব্যবসায়ীর গুদামে মিললো ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৪:৩৪ এএম, ০৭ মে ২০২২
গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল মজুত

পার্বত্য খাগড়াছড়ির রামগড়ের সোনাইপুল বাজারে এক ব্যবসায়ীর চারটি গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তৈলের অবৈধ মজুতের সন্ধান পেয়েছে প্রশাসন। অবৈধভাবে ভোজ্যতেল মজুতের অপরাধে ওই ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মালিক মো. ফজলুল করিম পাটোয়ারীকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

একই অপরাধে ওই বাজারের মেসার্স আলমগীর স্টোরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

শুক্রবার (৬ মে) বিকেলে রামগড়ের সোনাইপুল বাজারে আকস্মিক অভিযান চালিয়ে রামগড় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন ওই দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেন।

jagonews24

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, ভোজ্যতেলের অবৈধ মজুতের খবর পেয়ে রামগড়ের সোনাইপুল বাজারের মেসার্স খাঁন ট্রেডার্সে অভিযান চালানো হয়। এসময় ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক ফজলুল করিমের চারটি গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। কোনো ধরনের ডিলিং লাইসেন্স ছাড়াই বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে অধিক মুনাফার জন্যই এভাবে তেল মজুত করা হয়েছে। একই বাজারের মেসার্স আলমগীর সেটার নামে আরেকটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানেও অভিযান চালিয়ে তেল মজুত পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে রামগড় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন বলেন, লাইসেন্স ছাড়া ভোজ্যতেলের ডিলার হিসেবে ব্যবসা পরিচালনা করা এবং সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুতের অপরাধে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৫৬ এর ৬ ধারায় মেসার্স খাঁন ট্রেডার্সকে এক লাখ টাকা এবং মেসার্স আলমগীর স্টোরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/ইএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]